দেখে নিন যে সকল কারনে আপনার আইফোন কেনা উচিত হবে না

1
1171
  1. ১।আইফোনের দাম অন্য ব্র্যান্ডের মোবাইলের চেয়ে অনেক বেশি দামি কিন্তু কনফিগারেশন এর দিক দিয়ে আইফোন অনেক কিছু হাতে রেখে দেয়।যেমন আপনি ৩৫ হাজার টাকা দিয়ে আইফোন ৩জি এস কিনলেন,এই দাম দিয়ে আপনি এইচ টি সি,স্যামসাং এর চেয়ে অনেক গুল শক্তি সম্পন্য প্রসেসর,ক্যামেরা,র‍্যাম ইত্যাদি বেশি পাবেন
  2. ২।বাংলাদেশ এ আইফোন অ্যাপ স্টোর থেকে সরাসরি কেনা যায় না,সিঙ্গাপুর বা ব্যাংকক থেকে এনে বিক্রি করে।আপনি হয়ত বিশ্বাস করবেন না এক একটা সেট এ কত কাহিনি করে,দাম বাড়া কমা অনেক কিছুই।আইফোনের এসসেসরিস থেকে শুরু করে প্যাকেট টা পর্যন্ত চেঞ্জ করে ফেলে।বাইরে থেকে না আনালে ভাল আইফোন দেশ থেকে কেনা অনেক রিস্কি
  3. ৩।এদেশে যেসব আইফোন আসে তার বেশির ভাগ ই ক্যারিয়ার লক করা থাকে ,এখানে আনলক করা হয়,এতে কম দামে আইফোন কেনা যায় কিন্তু আপনি আপডেট বা রিসেট ফ্যাক্টরি সেটিং দিলে সেটা লক হয়ে যায়।নিজে আনলক করতে পারলে তো ভাল না পারলে দোকানে যেতে হবে,লাগবে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা।আর আইফোন আনলক করার ক্ষেত্রে ক্যারিয়ার,বেসব্যান্ড,মডেল অনুসারে করতে হয়,ঝামেলা কম না
  4. ৪।আনলক করা আইফোন গুলোতে চার্জ খুব তারাতারি ড্রেন হয়।
  5. ৫।আনলক করা আইফোন গুলো তে কিছু বাগ থাকে যা আপনাকে কিছু ফাংশন ইউজ করতে বাধা দিবে
  6. ৬।আইফোনে আপনি ব্যাটারি চেঞ্জ করা যায় না,তাই ব্যাটারি কোন কারনে ডেমেজ হলে আপনার খবর আছে
  7. ৭।আইফোনের এসসেসরিজ অরিজিনাল পাওয়া খুব কস্ট ,দাম ও অনেক বেশি,আপ্নি হয়ত অরিজিনাল ভেবে ১০০০টাকা দিয়ে কিনলেন,বুজতেও পারবেন না ওটা চাইনিজ,চাইনিজ আর ওরিজিনালের পার্থক্য বুঝা অনেক কস্ট
  8. ৮।আপ্নি হয়ত পেইড সফটঅয়ার ইউজ করবেন ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করে,আপনি সেটা করতে হলে জেইল ব্রেক করতে হবে,তার পর কিছু রেপু ফাইল ইন্সটল করে সফট ইউজ করতে হবে তাও সব সফট সব সময় সাপোর্ট করে না।অথচ অ্যান্ডয়েড এ আপনি ডিরেক্ট ইউজ করতে পারবেন কোন ঝামেলাই করতে হবে না
  9. ৯।আপ্নি হয়ত আপনার আইফোন এ গান বা ভিডিও পাঠাবেন,আপ্নাকে আইটিউন ছাড়া সেটা করতে পারবেন না।ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করা বা ভিডিও কনভার্ট করা ফাইল কিছু কিছু সময় আই টিউন দিয়েও পাঠানো যায় না,জানি না সিকিউরিটির ব্যাপার কিনা।আপ্নার ভাল লাগা কিছু গান ডাউনলোড করলেন কিছু আইফোন এ পাঠিয়ে শুন্তে পারলেন না,মেজাজ কেমন হবে?? অ্যান্ডয়েড এ সরাসরি ফাইল পাঠানো যায় কোন ঝামেলা ছাড়াই
  10. ১০।আপ্নি হয়ত অন্য ফাইল পাঠাবেন যেমন ডক,পাওয়ার পয়েন্ট, এম্পিত্রি,এম্পি ফোর ছাড়া আপনি আইটিউন থেকে পাঠাতে পারবেন না, অন্য ভাবে পাঠাতে হবে, ফাইল জিলা বা আই এক্সপ্লোরাল দিয়ে তাও অনেক স্লো অনেক ঝামেলার।মোট কথা আপনার পিসি ছাড়া একেবারেই অচল।
  11. ১১। অ্যাপল তাদের আই ও এস প্রায় ই আপডেট দেয়,আপ্নার পুরনো ও এস হলে অনেক সফট অয়ার ইউজ করতে পারবেন না,আবার আপনার ও এস আপডেট দিলে মোবাইল স্লো হয়ে যাবে। অ্যান্ডোয়েড এ এ ধরনের ঝামেলা খুব কম ই হয়
  12. ১২।আপনি অন্যের পিসি থেকে আইটিউন দিয়ে গান নিবেন,সেটা আইফোন করতে দিবে না।
  13. ১৩।ব্লু টুথ দিয়ে গান নিবেন অন্যের মোবাইল থেকে?? পারবেন না। অ্যান্ড্রয়েড এ কোন ঝামেলাই না
    আজ এ পর্যন্তই সামনে আরো লিখব।আপ্নার যদি বাজেট কম হয় মোবাইল নিয়ে অত ঝামেলা করতে চান না মোবাইল নিয়ে কিন্তু স্মার্ট ফোনের সব মজা নিতে চান তাহলে আমি বলব আপনি অ্যান্ড্রয়েড এর যে কোন একটা নেন।আইফোন টাচ,ক্যামেরা সাউন্ড কোয়ালিটির জন্য বেস্ট কিন্তু অত ইউজার ফ্রেন্ডলি না।

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ