অ্যাপসের মাধ্যমে ধূমপানের অভ্যাস বর্জন!

0
274

ধূমপান যাদের অভ্যাস তাদের জন্য কিছু জায়গায় অভ্যাসটা চালিয়ে যাওয়া কঠিন বটে। বিশেষ করে তরুণদের। তেমনি এক তরুণ ব্রায়ান কোয়েবারের কথা প্রকাশ করেছে ম্যাশএবল। ধূমপায়ীরা সাধারণত ঘর থেকে বের হওয়ার সময় পকেটে দুটো জিনিস আছে কি না তা নিশ্চিত হন। এর একটি হচ্ছে সিগারেট অপরটি স্মার্টফোন।

২২ বছর বয়সে দিনে এক প্যাকেট সিগারেট কিনতে গিয়ে যখন প্রায় ফতুর হওয়ার অবস্থা, তখন বন্ধুদের কাছে ধূমপান ছাড়ার বিভিন্ন পরামর্শ চান ওই তরুণ। সোশাল মিডিয়াতেও অনেক অনুসন্ধান করার পর তেমন ফল মেলেনি। তবে, অ্যাপ স্টোরে গিয়ে দেখা মিলল শতাধিক অ্যাপস যেগুলো ধূমপানের অভ্যাস বর্জনের জন্য তৈরি। সেখান থেকে অনেক অ্যাপ ডাউনলোড করেও তেমন কাজে লাগেনি। তবে, কিছু অ্যাপ্লিকেশন তার চিন্তার ধারা পাল্টে দিয়েছে।

full_577205543_1396682574 অ্যাপসের মাধ্যমে ধূমপানের অভ্যাস বর্জন!

ইন্টারনেট থেকে পাওয়া কিছু পরামর্শ কাজে লাগিয়ে অল্প কিছু দিনের মধ্যে ধূমপান বর্জন করতে পারাটি ছিল তার কাছে আনন্দের। দেখা গেছে ধূমপানের মাত্রা কমিয়ে দেওয়ার পর থেকে ঘুম ভালো হয়, স্ট্রেসও কমতে শুরু করে। r/stopsmoking এ গ্রুপটি ধূমপান ছাড়াতে পরামর্শ সহায়তা করে থাকে। কারণ এখানে আছে অনেক সাবেক ধূমপায়ী, বর্তমানে যারা এ অভ্যাস থেকে মুক্ত। কেউবা মুক্তির পথে। শেয়ার করছেন এ সময় তাদের অনুভূতিগুলো। যেগুলো নতুন করে ধূমপানের অভ্যাস বর্জন করতে আগ্রহীদের অনুপ্রেরণা জোগায়। নিয়মিত এ বিষয়ে নিজের মতামত দিতে শুরু করেন।

একটি অ্যাপ ইনস্টল করার পর সেখানে শুরু হল হিসেব নিকেশ। খোঁজ মিলল প্রতিদিন সিগারেট কিনতে গিয়ে কত ডলার খরচ করতে হয়। এভাবে চলতে থাকলে তার ভবিষ্যত অবস্থা কী হবে তা নিয়ে ভাবতে লাগলেন। অনুভব করলেন এভাবে চলতে থাকলে সরকারি ঋণ ৬ ডিজিটের ঘরে পৌঁছাতে পারে।

তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্কের মতো শহরে এক প্যাকেট সিগারেট কিনতে সর্বনিম্ন খরচ ১২ ডলার। শুধু সিগারেটের খরচ মেটাতে যেখানে হাঁসফাঁস অবস্থা, তাতে পরিবার থেকেও বলা হল ধূমপান বর্জন করতে। রেডিটে আছে সব ধরনের আসক্তি থেকে বের হওয়ার পথে অসংখ্য সহযাত্রী। তাদের অনূভূতিগুলো আসক্তি থেকে বেরিয়ে আসতে সহায়ক। ব্লগারদের মতো এখানে এদের বলা হয় রেডিটরস।

একটি উত্তর ত্যাগ