অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং কি? কেন? এবং কিভাবে? অনলাইনে আয়ের আর একটি নির্ভরযোগ্য উপায়

0
1046

Thumnaffaliate  অ্যাফেলিয়েট মার্কেটিং কি? কেন? এবং কিভাবে? অনলাইনে আয়ের আর একটি নির্ভরযোগ্য উপায়এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলতে সাধারনত পন্য বিক্রি করে কিছু কমিশন প্রাপ্তির এক ধরনের সিস্টেমকে বোঝানো হয়ে থাকে। বাংলাদেশেও এ ধরনের সিষ্টেমে ব্যবসা করছে অনেক প্রতিষ্ঠান। বর্তমান সময়ে অনলাইন থেকে যতগুলো আয়ের পন্থা সম্পর্কে আমরা জেনেছি, এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং তাদের মধ্যে অন্যতম। ভাল মানের একজন ব্লগার এ মাধ্যম থেকে প্রচুর পরিমান অর্থ উপার্জন করতে সক্ষম। ভাল মানের একজন ব্লগারের কথা বলছি এ কারনে যে, এই মাধ্যম থেকে উপার্জনের জন্যও আপনার দরকার হবে প্রচুর পরিমান ভিজিটর আর ভাল মানের একজন ব্লগারই পারে বিভিন্ন মাধ্যম থেকে ভিজিটর সংগ্রহ করতে। এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে Amazon বেশ ভাল মানের এবং নির্ভরযোগ্য একটি সাইট। বিশ্বের অনেক ব্লগার এই সাইটের পন্য মার্কেটিং করে প্রচুর পরিমান অর্থ উপার্জন করছে।

এ সাইটের পন্য বিক্রি করতে পারলে আপনি পাবেন মোট পন্যমূল্যের ১৫%। অর্থাৎ ১০০ টাকার একটি পন্য বিক্রি হলে আপনি পাবেন ১৫ টাকা আর এই টাকার অঙ্কটা যখন ডলারে গননা করা হবে তখন তো আর বাংলাদেশী ১৫ টাকা থাকবে না। ১০০ ডলারের পন্য বিক্রি হলে আপনি পাবেন কমপক্ষে ১০০০ টাকা।

এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর পূর্ব প্রস্তুতি:

 শুরুতেই নিজস্ব ডোমেইন কিংবা ফ্রি ডোমেইন এর মাধ্যমে একটি ব্লগ  সাইট খুলে বিষয়ভিত্তিক  আর্টিকেল পোষ্ট করতে থাকুন।

  1.  বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ভিজিটর সংগ্রহে এবং মোট ভিজিটরের পরিমান বৃদ্ধির জন্য  ব্যাকলিংক তৈরি, মার্কেটিং, ফোরাম পোষ্টিং, কমেন্ট পোষ্টিং তথা  Seo এর কাজগুলো বেশি বেশি করতে থাকুন।
    কারণ ভিজিটর বৃদ্ধির জন্য Seo এর কোন বিকল্প নেই।
  2. নিয়মিত ভিজিটরের আপডেট দেখে দেখে নিত্য নতুন পরিকল্পনা গ্রহন করুন।
  3. যখন মনে করবেন আপনার ব্লগটি এখন বেশ জনপ্রিয় এবং ভিজিটরদের কাছে গ্রহনযোগ্য হয়েছে তখন আপনি এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর জন্য পরিকল্পনা গ্রহন করুন। কেননা, সবচেয়ে বড় সত্য হচ্ছে আপনার সাইটে বিদেশী ১০০০ ভিজিটর ঢুকলে হয়ত আপনার এ্যাফিলিয়েটকৃত পন্য বিক্রি হবে ১-১০ টি। তবে এটিও সত্য যে, ভালমানের একটি ব্লগ সাইটে প্রতিদিন হাজার হাজার ভিজিটর আনা কঠিন কিছু নয়।

 
কিভাবে আপনার ব্লগে যুক্ত করবেন Amazon.com এর পন্য:

 শুরুতেই www.amazon.com সাইটে সঠিক নাম-ঠিকানা দিয়ে স্বাভাবিক নিয়মে রেজিষ্ট্রেশন করুন।

  1. সাইটের Make Money with Us অপশন থেকে এসোসিয়েট হিসেবে যোগদান করুন। এখানে একটি Id আপনার জন্য নির্দিষ্ট করা হবে, সে আইডিটি সংরক্ষনে রাখুন।
  2. আপনার প্রদানকৃত সকল তথ্যের পর্যালোচনা শেষে ১-৩ কার্যদিবসের মধ্যে আপনাকে একটি মেইল পাঠানো হবে এবং স্পেশাল একটি পেজে প্রবেশের অনুমতি পাবেন।
  3. মূল পেজে প্রবেশের পরে Get started now বাটনে ক্লিক করে দেখে নিন সকল নিয়ম কানুনের আপডেট।
  4. এবার এ সাইট থেকে প্রডাক্ট এর লিঙ্ক (এইচটিএমএল কোড) সংগ্রহ করে আপনার ব্লগ কিংবা ওয়েবসাইটে ব্যবহার করুন। এরপর যারাই আপনার প্রদত্ত লিঙ্ক থেকে পন্য সংগ্রহ করবে আপনি পাবেন মোট পন্যমূল্যের ১৫%।

যারা এ বিষয়টি নতুন শুনেছেন, আশা করি তারা উপরের আলোচনা থেকে কিছুটা হলেও এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে ধারনা নিতে পারবেন। এবার চালিয়ে যান। আপনার চেষ্টা সফলতা আসবেই ইনশাল্লাহ। ও আরেকটি কথা, আপনার উপার্জিত অর্থ দেশে আনতে পেমেন্ট পদ্ধতি অবশ্যই চেক সিলেক্ট করবেন। নিজস্ব ওয়েব সাইট ছাড়াও এ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে কিভাবে আয় করা যায়, পরবর্তীতে সে সম্পর্কে আবারো লিখব সে পর্যন্ত ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন এই কামনায়…

একটি উত্তর ত্যাগ