হ্যাকিং কমাতে সাইবারক্রাইম সেন্টার

0
241
সাইবার অপরাধ হ্যাকিং ঠেকাতে নতুন একটি কৌশল অবলম্বন করতে যাচ্ছে সফটওয়্যার নির্মাতা মাইক্রোসফট। সম্প্রতি ওয়াশিংটনের রেডমন্ডে প্রতিষ্ঠানটি নতুন একটি সাইবারক্রাইম সেন্টার তৈরি করেছে। এতে বিশ্বের সেরা সেরা সিকিউরিটি ইঞ্জিনিয়ার, ডিজিটাল ফরেনসিস এক্সপার্ট, ফাইটিং সফটওয়্যার পাইরেটস ট্রেইন্ড ল’ইয়ারদের একসঙ্গে করা হচ্ছে। গত ১৪ নভেম্বর এই সাইবারক্রাইম সেন্টার উদ্বোধনের মাধ্যমে প্রযুক্তিবিশ্বে যে শূন্যস্থান ছিল তা পূরণ করার পদক্ষেপ নিল মাইক্রোসফট।
যদি এর আগে অনেকগুলো প্রাইভেট কোম্পানি এক হয়ে কাজ করার ফলে সাইবার ক্রাইমের বিরুদ্ধে একটি বড় জয় এসেছে। ওয়াশিংটনের সেন্টারটি পরিদর্শন করার সময় মাইক্রোসফটের ডিজিটাল ক্রাইম ইউনিট চিফ ডেভিড ফিনন বলেন, সাইবারক্রাইমের পরিমাণ দিন দিন বাড়ছে। প্রতি বছর প্রায় ৪০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী সাইবারক্রাইমের শিকার হয় একই সঙ্গে ১১০ বিলিয়নেরও বেশি অর্থ নষ্ট হয়। তবে তিনি আশা করেন, বিভিন্ন স্পেশালিস্টদের একত্রে নিয়ে আসার এই পরিকল্পনার মাধ্যমে ইন্টারনেট ও নিরাপত্তা প্রযুক্তির আরো উন্নতি হবে। সেন্টারটির কেন্দ্রে রয়েছে একটি ল্যাব।
এখানে বিভিন্ন ধরনের সফটওয়্যার নিয়ে কাজ চলবে। ল্যাবটিতে শুধু ফিঙ্গারপ্রিন্ট অথোরাইজেশনের মাধ্যমে প্রবেশ করা যাবে। এর পাশে রয়েছে আরেকটি রুম যেখানে রয়েছে একটি মনিটরের মাধ্যমে বিভিন্ন ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডর ও দেশের ইন্টারনেট ট্র্যাক করার মেশিন।
রুমটির টাচস্ক্রিন মনিটর রয়েছে। পুলিশ ও ব্যবহারকারীদের জন্য নির্দিষ্ট কাজে বসার সিটের পাশাপাশি রয়েছে হাজারেরও বেশি বোটনেট। মাইক্রোসফটের এই ক্রাইম ইউনিট কোনোভাবেই গভর্নমেন্ট স্পায়িং এ সমস্যা করবে না। বরং নানা তথ্যের মাধ্যমে তাদের সাহায্য করবে। আমেরিকার ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সি মাইক্রোসফটকে নিরাপত্তা প্রদান করবে।

একটি উত্তর ত্যাগ