পর্নো সাইটে ক্লিক করলেই সর্বনাশের কবলে

0
368

প্রাপ্তবয়স্কদের অশ্লীল সিনেমা আসলে পরাজিতদের জন্য! বিযয়টি আসলে এবার সত্যি প্রমাণিত হলো। আমেরিকান ফুটবলের ফাইনালে দুর্ভাগ্যজনকভাবে হেরে যায় ডেনভার ব্রনকোস। এর পরের দিন পর্নো সিনেমার সবচেয়ে বড় সাইট ‘ওয়ার্ল্ডস বিগেস্ট ফ্রি পর্ন ওয়েবসাইট’-এর পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ওই দিন ডেনভারের অধিবাসীরা পর্নো সিনেমা দেখার হার ৭০ শতাংশ বেড়ে গিয়েছিলো।

এ তথ্যের মাধ্যমে আরেকটি বিষয় পরিষ্কার হওয়া গেল, তা  হলো, আপনি যত গোপনেই পর্নো সাইটে ঘোরাফেরা করুন না কেনো, আপনার সব তথ্যই রেকর্ড করা যাবে।

অন্যদিকে ওইদিন সিয়াটলে বিজয়ী জুবিল্যান্ট সিহকের ভক্তরা তাদের বিজয় উদযাপন করেন বিয়ার পান করে, হাসি-তামাশা এবং খেলার বিশেষ অংশের রিপ্লে দেখে। সেখানে পর্নো সাইটগুলোতে ঢুঁ মারার হার ১৭.১ শতাংশ কম ছিল।

পর্নো-ছবি পর্নো সাইটে ক্লিক করলেই সর্বনাশের কবলে

ব্রিটিশ পত্রিকা  দ্য টেলিগ্রাফ জানায়, যারা মনে করেন, তারা লুকিয়ে লুকিয়ে সতর্ক হয়ে পর্নো সাইটগুলোতে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এবং তাদের কেউ দেখছে না। এ ধারণা আসলে ভুল। প্রতিটি ক্লিক নজরে রাখা হচ্ছে। আর এভাবেই পর্নো সাইটের মালিকরা ব্যবহারকারীদের ধীরে ধীরে ফি প্রদান করে পর্ন ছবি দেখতে বাধ্য করেন।

প্রথমে ব্যবহারকারীরা এতে ফ্রি ভিজিট করে মজা পান। কিন্তু খুব শিগগিরই তাদের কিছু অংশকে টাকা দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে নিয়মিত পর্নো দেখতে বাধ্য করা হয়। আর এভাবে প্রতি বছর ১০০ মিলিয়ন ডলার রেভিনিউ উঠে আসে এ ব্যবসা থেকে।

পর্নো ব্যবহারকারীরা যত কমই সাইটে ঢুঁ মারুক না কেন, তাঁদের আইপি অ্যাড্রেস, যাবতীয় তথ্য এবং কতক্ষণ আপনি থাকলেন তার সবই রেকর্ড হয়ে যায়। যত গোপনেই প্রবেশ করুন না কেন, একটি মাত্র ক্লিকের মাধ্যমেই আপনার সব ধরনের তথ্য রেকর্ড করে ফেলা হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ