আসুন জানি ওয়ার্ডপ্রেস ও এটির কোম্পানি সম্পর্কে

0
255
আসুন জানি ওয়ার্ডপ্রেস ও এটির কোম্পানি সম্পর্কে

ব্লগার ভাই

সুপ্রিয় পাঠক, আমি "ব্লগার ভাই "। আমি কয়েক বছর ধরে টিউনারপেজ এ টিউন করি। আমার নিজস্ব ব্লগে আরো টিপস পাবেন।www.ideabuzz.net
আসুন জানি ওয়ার্ডপ্রেস ও এটির কোম্পানি সম্পর্কে

idea buzz (4) আসুন জানি ওয়ার্ডপ্রেস ও এটির কোম্পানি সম্পর্কেবন্ধুরা, আশা করি সবাই ভালো আছেন। বর্তমানে অনেকগুলো কনটেন্ট মেনেজমেন্ট সিস্টেমের মাঝে বহুল জনপ্রিয় হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেস। এটি দিয়ে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে অনেক কম সময় লাগে, কোনো কোডিং এর প্রয়োজন হয় না আর সবচেয়ে বড় বিষয় হলো এটি ফ্রী ও পরিচালনার জন্য কোডিং এর প্রয়োজন হয় না। এটির বিশাল সংগ্রহ জনপ্রিয়তার আর একটি অন্যতম কারণ। ওয়ার্ডপ্রেসের জনক হলেন MATT MULLENWEG তার তৈরি করা কোম্পানি Automattic বর্তমানে এই কোম্পানির দ্বারা ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে।

Automattic কোম্পানিটি যে শুধু ওয়ার্ডপ্রেস তৈরি করে বসে আছে তা কিন্তু নয়। আমাদেরকে তারা আরো নতুন কিছু প্লাটফর্ম, প্লাগিন উপহার দিয়েছে যার বেশির ভাগই ফ্রী। উদাহরণস্বরূপ:

Jetpack: এটি হচ্ছে ওয়ার্ডপ্রেসের তাদের তৈরি করা প্লাগিন সমষ্টি। প্লাগিন সমষ্টি বলার কারণ হলো এতে অনেকগুলো প্লাগিন একত্রে একটি প্লাগিন তৈরি করা হয়েছে।

VaultPress: এটি ওয়ার্ডপ্রেসের ব্যাকআপের জন্য একটি প্লাগিন।

Akismet: ওয়ার্ডপ্রেস স্প্যাম মুক্ত রাখতে এটি অদ্বিতীয়।

Polldaddy: এটি সার্ভে অথবা প্রশ্নোত্তর তৈরি করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

VideoPress: নাম শুনেই বুঝতে পারছেন ইউটিউবের মত এটি ভিডিও আপলোড করার একটি সাইট।

Gravatar: আপনি যদি এই সাইটটিতে একটি একাউন্ট তৈরি করেন ও আপনার প্রোফাইলটি সম্পূর্ণ করেন (যেমন ছবি, আপনার ওয়েবসাইট, আপনার সোশ্যাল একাউন্ট যুক্ত করা, আপনার সম্পর্কে কিছু কথা, ইত্যাদি), তাহলে যে ইমেইল দিয়ে একাউন্টটি তৈরি করেছেন ঐ ইমেইল তাদের কোম্পানির তৈরি করা প্রতিটি সাইটে ব্যবহার করলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার তথ্যগুলো যুক্ত হয়ে যাবে।

IntenseDebate: বিভিন্ন ব্লগ সাইটগুলোতে কমেন্ট করার জন্য এটি ব্যবহার করা হয়।

After the Deadline: এটি ওয়েবসাইট কন্টেন্টের বানান ও ব্যাকরণ পরীক্ষা করার জন্য ব্যবহার করা হয়।

Plinky: এটি প্রশ্নোত্তর দেওয়ার একটি সাইট।

Code Poet: এটি একটি ব্লগ সাইট।

WordPress VIP: এটি একটি হোস্টিং সাইট।

BuddyPress: আমরা জানি ব্লগ সাইট তৈরি করার জন্য ওয়ার্ডপ্রেস ছাড়া আর কোনো সহজ উপায় নেই। কিন্তু আপনি যদি ফেসবুকের মতো একটি সাইট তৈরি করতে চান? এটির সমাধান হচ্ছে এই প্লাগিন। এটিকে প্লাগিন বলবো নাকি আর একটি ওয়ার্ডপ্রেস বলবো বুঝতে পারছি না।

bbPress: ওয়ার্ডপ্রেসে যদি ফোরাম যুক্ত করতে চাই তবে এই প্লাগিনটি ব্যবহার করতে পারি।

GlotPress: এটি একটি ব্লগ সাইট। কিন্তু অনেকটা ফোরামের মতো।

P2 Theme: এটি একটি ব্লগ সাইট তৈরি করার আর একটি সিস্টেম। কিন্তু অনেকটা ফোরামের মতো।

Ping-o-Matic: সার্চ ইঞ্জিনে আপনার সাইটিকে দ্রুত পাইয়ে দেওয়ার জন্য আমরা পিং করি। এই কাজটি করার জন্যই এই সাইটটি।

WP for iOS: আইফোন অপারেটিং এর জন্য এই সাইটটি।

WP for Android: এনড্রয়েডের জন্য এই সাইটটি।

WP for BlackBerry: ব্লাকবেরীর জন্য এই সাইটটি।

WP for Windows Phone: উইন্ডোজ ফোনের জন্য এই সাইটটি।

Word Camp SF: এটি একটি ব্লগ সাইট।

এতক্ষণ ওয়ার্ডপ্রেসের আশেপাশে দিয়ে ঘুরছিলাম। কিন্তু ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে কিছু বলছিলাম না। এবার আর ওয়ার্ডপ্রেসের আশেপাশে দিয়ে ঘুরবো না। আসুন জানি ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে। ওয়ার্ডপ্রেস এমন একটি কনটেন্ট মেনেজমেন্ট সিস্টেম যা দিয়ে যেকোনো ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করা সম্ভব। এমনকি ই-কমার্স ওয়েবসাইটও। দিন দিন ওয়ার্ডপ্রেসের জনপ্রিয়তা বেড়েই চলছে। ওয়ার্ডপ্রেসের দুইটি ভার্সন রয়েছে: wordpress.com ও wordpress.org এই দুইটির মাঝে কিছু মূল পার্থক্য নিচে দেওয়া হলো:
WordPress.com

WordPress.org
এটি তাদের নিজেদের সার্ভারে তৈরি করে ব্যবহার করতে হয় এবং তাদের দেওয়া সাব-ডোমেইন ব্যবহার করতে হয়। তবে আপনি চাইলে তাদের কাছ থেকে ডোমেইনও কিনতে পারেন অথবা আপনার ডোমেইন ব্যবহার করতে পারেন। এতে আপনার পূর্ণ স্বাধীনতা রয়েছে। আপনি আপনার নিজস্ব ডোমেইন, সাব-ডোমেইন ও সার্ভার ব্যবহার করতে পারবেন। এমনকি আপনি চাইলেও তাদের সার্ভার ব্যবহার করতে পারবেন না। মানে আপনাকে আপনার নিজস্ব ডোমেইন, সাব-ডোমেইন ও সার্ভার ব্যবহার করতে হবে।
এটিতে সীমিত থিম বা টেম্পলেট রয়েছে যা আপনি আপনার ইচ্ছা মত পরিবর্তন বা পরিবর্ধন করতে পারবেন না। তবে এই সীমিত থিম বা টেম্পলেটের সংখ্যাও কম নয়। এটিতে অনেক থিম বা টেম্পলেট রয়েছে যা আপনি আপনার ইচ্ছা মত পরিবর্তন বা পরিবর্ধন করতে পারবেন। এমনকি আপনি আপনার পছন্দ মত থিম বা টেম্পলেট তৈরি করতে পারবেন।
এটি সম্পূর্ণ ফ্রী। এই কনটেন্ট মেনেজমেন্ট সিস্টেমটি ফ্রী। তবে ডোমেইন, হোস্টিং এর জন্য টাকা দিতে হবে এবং আপনি যদি প্রিমিয়াম থিম বা টেম্পলেট অথবা প্লাগিন ব্যবহার করতে চান তবে অবশ্যই টাকা লাগবে।
এটিতে আপনি বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন তবে তাদের নিয়ম মেনে। এটিতে আপনি আপনার ইচ্ছা মত বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন।
তাদের নিয়ম অনুসারে আপনাকে চলতে হবে। সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ আপনি কখনই পাবেন না। এটি সম্পূর্ণ আপনার দুনিয়া। আপনি নিয়ম তৈরি করবেন, আপনিই ভাঙ্গবেন। কারো কিছু বলার নেই যদি এটি আপনারনিজস্ব ওয়েবসাইট হয়। কিন্তু যদি এইখানে অন্যান্য ইউজারের সম্পৃক্ততা থাকে তবে অবশ্যই কিছু নিয়ম তো থাকবেই, তাই না?
ওয়েবসাইটের নিয়ন্ত্রণ তাদের হাতে থাকবে, কিন্তু সাইটে তো নতুন কনটেন্ট আপনাকেই যুক্ত করতে হবে, তাই না? ওয়েবসাইটের নিয়ন্ত্রণ আপনার হাতে থাকবে। আপনি যা ইচ্ছা তাই করতে পারেন। সাইটে কোনো সমস্যা হলে তা আপনাকেই সমাধান করতে হবে।
এইখানে সম্পূর্ণরূপে নিজের ব্র্যান্ড ব্যবহার করতে পারবেন না। তাদের ওয়েবসাইটের নাম এবং লিঙ্ক থাকবে। এইখানে আপনার পূর্ণ স্বাধীনতা রয়েছে। আপনি আপনার ওয়েবসাইটে কি রাখবেন, কি রাখবেন না এটি সম্পূর্ণ আপনার বিষয়।
হাতে গোনা কিছু প্লাগিন ব্যবহার করতে পারবেন যেগুলো তাদের সাইটে রয়েছে। নতুন করে কিছু যুক্ত করতে পারবেন না। অসংখ্য প্লাগিন ব্যবহার করতে পারবেন যেগুলো তাদের সাইটে রয়েছে। এমনকি নতুন করে তৈরি করতে পারবেন এবং তা আপনার সাইটে যুক্ত করতে পারবেন।
আপনার সাইটের ব্যাকআপ তারা নিয়ন্ত্রণ করবে। আপনার সাইটের ব্যাকআপ আপনি নিয়ন্ত্রণ করবেন।
SSL ও নিরাপত্তা তারা নিয়ন্ত্রণ করবে। SSL ও নিরাপত্তা আপনি নিয়ন্ত্রণ করবেন।

লেখাটি কেমন হলো আমি জানি না। এটি আপনারা নির্ধারণ করবেন। সবাই ভালো থাকবেন। কষ্ট করে এতক্ষণ আমার লেখাটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।
প্রথম প্রকাশ: www.ideabuzz.net

একটি উত্তর ত্যাগ