আপনার ফেসবুক যেভাবে সাজাবেন

0
303
ফেসবুক নিউজফিড বা হোমপেজে আমরা সাধারণত কী দেখতে পাই? ব্যবহারকারীদের ফটো, ফ্যামিলি ফটো, বিজ্ঞাপন, স্ট্যাটাস, লিংক, জব অ্যানাউন্সমেন্ট প্রভৃতি। এগুলো নিয়েই গঠিত হয় ফেসবুকের মূল কনটেন্ট লিস্ট। কিন্তু আপনি খেয়াল করলেই দেখবেন, মাঝে মাঝে ফেসবুক ব্রাউজ করার সময় পোস্ট দেখতে দেখতে হাঁপিয়ে উঠতে হয়। এর কিছু কিছু কনটেন্টের কারণেই এমন হয়। কিন্তু আপনি চাইলে আপনার নিকট বিরক্তিকর কনটেন্ট থেকে সহজেই রেহাই পেতে পারেন।
ফেসবুকে আপনার কিছু কিছু ‘ফ্রেন্ড’ থাকতে পারে যারা অতিরিক্ত পরিমাণে পোস্ট দেয়। কপি-পেস্ট, সত্যি-মিথ্যা, নিশ্চিত-অনিশ্চিত কোনো কিছুই বাদ যায়না তাদের ওয়াল থেকে। এ ধরণের ফেসবুকার থেকে রক্ষা পেতে চাইলে অনেকেই হয়ত তাদের আনফ্রেন্ড করে দিতে চাইবেন। কিন্তু কেউ কেউ ফেসবুক ফ্রেন্ডদের রিমুভ করতে অনিচ্ছুক। তারা এসব ফ্রেন্ডদের রিমুভ করতেও পারেনা, আবার এদের জ্বালায় শান্তিতে ফেসবুক ব্রাউজ করতেও পারেন না।
এদের জন্য সমাধান হচ্ছে “আনফলো”; হ্যাঁ, আপনি যেকোনো বিরক্তিকর ফেসবুক ইউজারকে ফ্রেন্ড লিস্ট থেকে রিমুভ না করেই তার অনাকাঙ্ক্ষিত পোস্ট-স্ট্রিম এড়াতে পারেন।
এজন্য সংশ্লিষ্ট সেই ফ্রেন্ডের প্রোফাইলে ভিজিট করে সেখানে ফলোয়িং লেখা বাটনে ক্লিক করলেই তার পোস্ট আপনার নিউজফিড থেকে হাইড হয়ে যাবে। অর্থাৎ আপনি তাকে আনফলো করবেন।
এরপর কোনোদিন আপনি যদি উক্ত ফ্রেন্ডের পোস্ট সমূহ আবার আপনার হোমপেজে ফিরিয়ে আনতে চান, তাহলে একইভাবে সেই ইউজারের প্রোফাইলে ভিজিট করে ‘ফলো’ বাটন ক্লিক করুন। ব্যাস, কাজ হয়ে যাবে। ফেসবুকে বিভিন্ন ফ্যানপেজের জন্যও ‘আনফলো’ অপশন প্রযোজ্য হবে।
কিন্তু এই প্রক্রিয়ারও কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। একজন মানুষের সকল পোস্টই হয়ত আপনার অপছন্দ হবেনা। অন্তত দুই-একটা মানসম্পন্ন কনটেন্টও থাকতে পারে। এক্ষেত্রে ফলো-আনফলোর মধ্যে মাঝামাঝি কোনো অপশন নেই।
এ তো গেল অপছন্দের কথা। আপনি যদি কোনো ফ্রেন্ডকে খুব বেশি পছন্দ করেন এবং তার প্রতিটি পোস্ট দেখতে চান, তাহলে কী করবেন?  আরও পড়তে ক্লিক করুন…

একটি উত্তর ত্যাগ