এখন পর্যন্ত মানুষের নির্মিত সবচেয়ে বড় রকেট

0
275

তৈরি হয়ে গেলে এ রকেটটি হবে এখন পর্যন্ত মানুষের নির্মিত সবচেয়ে বড় রকেট। নাসা গতকাল ১৫ জানুয়ারি তাদের নতুন SLS (Space Launch System) এর চমৎকার সব ছবি প্রকাশ করেছে। এ ব্যবস্থাতে মহাশূন্যে ১৩০ টন পর্যন্ত ভর বহন করে নেয়া যাবে। রকেটটি ব্যবহার করা হবে আন্তর্জাতিক মহাশূন্য সংস্থায় নভোচারীদের আনা-নেয়ার জন্য। এছাড়া সৌরজগতের বাইরের যেকোন অভিযানেও এটাকে ব্যবহার করা যাবে। আশা করা হচ্ছে, মঙ্গল গ্রহে মানুষের বসতি স্থাপনের যে পরিকল্পনা রয়েছে সেটার বাস্তবায়নে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এ রকেট। বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও মহাশূন্যে মানুষের অভিযান- একের ভেতর দুই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই কাজ করে যাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা।

omosunno jan এখন পর্যন্ত মানুষের নির্মিত সবচেয়ে বড় রকেট

এখনো নির্মাণাধীন SLS (Space Launch System) হবে সবচেয়ে শক্তিশালী রকেট উৎক্ষেপণ যান। মূলত মঙ্গল ও একটি গ্রহাণুর উদ্দেশ্যে মানুষের অভিযানের কথা মাথায় রেখেই তৈরি করা হচ্ছে এটা। আর আশা করা হচ্ছে ২০১৭ সালে প্রথম ফ্লাইট এর যাত্রা শুরু করবে। পরীক্ষামূলক প্রথম যাত্রায় রকেটে থাকবে ৭০ টন ওজনের জিনিস, যা বর্তমানে স্পেস শাটলের বহন ক্ষমতার চেয়ে হবে ৩ গুণ বেশি। ধীরে ধীরে এর বহন ক্ষমতা ১৩০ মেট্রিক টন বা ১৪৩ টনে উন্নীত করা হবে।

বৈজ্ঞানিক গবেষণা সংক্রান্ত সংস্থা ও প্রকৌশলীদের নিয়ে গঠিত দল সব ধরণের সম্ভাবনা খতিয়ে দেখছেন। তারা জানতে চাচ্ছেন এ বিশাল রকেট নির্মাণ কতটুকু সাফল্যমণ্ডিত হবে। যেমন বৃহস্পতি গ্রহের চাঁদ ইউরোপাতে বিজ্ঞানীরা ইউরোপা ক্লিপার নামে একটি মহাশূন্যযান পাঠানোর প্রস্তাব করছেন। সেক্ষেত্রে নতুন এই SLS (Space Launch System)কে ব্যবহারের কথা ভাবছেন বিজ্ঞানীরা। এছাড়া সৌরজগতের বাইরের গ্রহগুলোতে অভিযানের ক্ষেত্রেও ব্যবহার করা হতে পারে একে। প্রযুক্তি ও গতি উভয় ক্ষেত্রেই এ রকেট হবে সর্বাধুনিক।

শুধু তাই নয়, হাবল টেলিস্কোপের মত বিশাল সব স্পেস টেলিস্কোপ মহাশূন্যে উৎক্ষেপণের কাজটিও বেশ সহজ হয়ে যাবে। আর তাই SLS (Space Launch System) মহাশূন্য অভিযান ও গবেষণার ক্ষেত্রে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে বলে আশা করছেন বিজ্ঞানীরা। ৩৮৪ ফুট উচ্চতার এ SLS (Space Launch System) এ রকেট উড্ডয়নকালে ৮.৪ মিলিয়ন পাউন্ড ধাক্কা (বল) প্রয়োগ করবে।

একটি উত্তর ত্যাগ