Bottle Bulb. শতাব্দীর আরেক বিস্ময় – বোতল বাল্ব!

0
282
bulb Bottle Bulb. শতাব্দীর আরেক বিস্ময় - বোতল বাল্ব!
এমআইটির ছাত্ররা দরিদ্র মানুষের কাছে বিদ্যুত সুবিধা দিতে নিয়ে এসেছে নিয়ে বোতল বাল্ব।
বৈদ্যুতিক খরচ বাড়ার এ সময়ে একটি উজ্জ্বল আবিস্কার আবিস্কৃত হলো। যা বৈদ্যুতিক খরচ কমাতে সহায়ক হবে। সূর্যের রশ্মি থেকে তৈরী এক বোতল পানিতে আলোর উৎপাদন করেছে ম্যাসাচ্যুসেটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজির একদল ছাত্র। এতে করে অভাবগ্রস্থ পরিবার পাবে বিনা খরচে আলোর সুবিধা।
১.৫ লিটার পানির বোতলের এক বোতল পানিতে ৩ টেবিল চামচ ব্লিচ মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরী করা হয়।সেই বোতলটি ঘরের চালের একটি ছিদ্রে বসিয়ে দেয়া হয । সারাদিনের সূর্যের আলোর তাপে বোতলটি আলোর সৃষ্টি করে। এই আলোর শক্তি ৫৫ ওয়াট। তবে এটি কেবলমাত্র সূর্যের আলোর সাহায্যেই বিদ্যুত উৎপাদন করতে পারে। তবে রাতের বেলা এর থেকে আলো পেতে হলে খুব কাছাকাছি ষ্ট্রিট লাইট কিংবা যথেষ্ট পরিমান চাদের আলো প্রয়োজন হবে।
এই প্রকল্পটি শুরু হয় ফিলিপাইনের রাজধানী ম্যানিলার একটি বস্তিতে। যখন গত বছর ইলেকট্রিসিটির ত্রুটির কারণে আগুন লেগে প্রায় ৫ হাজারেরও বেশি ঘর বাড়ি পুড়ে যায় তখন।
প্রকল্প পরিচালক আইলাক ডিয়াজ ১০ হাজারেরও বেশি বোতল বাল্ব উৎপাদনে সহায়তা করেছেন। তিনি প্রকল্পটি ভারত ও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশে বাড়ানোর জন্য পরিকল্পনা করছেন। ডিয়াজ বলেছেন,বোতল বাল্ব সব চেয়ে নিরাপদ আর এতে রক্ষা করা যাবে ৪০ শতাংশ বৈদ্যুতিক শক্তির খরচ।
বাংলাদেশেও নিশ্চয়ই প্রযুক্তিটি চলে আসবে আশা করি। এতে দেশে ক্রমবর্ধমান বিদ্যুত চাহিদা কিছুটা হলেও লাঘব হবে। আমাদের গ্রামগুলোতে পল্লী বিদ্যুত যে ভয়াবহ আকারে লোডশেডিং করে তা থেকে সাধারন মানুষ রেহাই পাবে। সেলুট সেইসব গবেষনাকারীদের যারা দরিদ্র মানুষের কথা ভেবে এমন প্রযুক্তি আবিস্কার করেছে।

একটি উত্তর ত্যাগ