সাবধান থাকেন বস কারন হ্যাক হচ্ছে গ্রামীণফোনের সিমকার্ড

0
594

প্রিয় বন্ধুর মোবাইল নম্বর থেকে হঠাৎ মৃত্যুর হুমকি পেলে কেমন লাগবে আপনার? যেমনই লাগুক এমনই ঘটনা ঘটেছে সিলেটে। হ্যাকারের কবলে পড়া শাহাদত হোসেন টিংকু জানান, গত ২৯ আগস্ট থেকে তার সিমকার্ড (০১৭১১-৫৮৭২xx) থেকে তারই বন্ধু জুসেফ এনামের ফোন নাম্বারে (০১৭১১-০১৩১xx) গালিগালাজ সম্বলিত এসএমএস পাঠানো হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে  দুই বন্ধুর মধ্যে মনমালিণ্য শুরু হলে গত রোববার আম্বরখানা গ্রামীণফোন সেন্টারে অভিযোগ দেন ভুক্তভোগীরা। এসময় গ্রামীণফোন সেন্টারের কর্মকর্তারা পরীক্ষা করে নাম্বার হ্যাকিংয়ের সত্যতা পেলেও বিষয়টির কোনো সমাধান দিতে পারেননি।

grameenphone সাবধান থাকেন বস কারন হ্যাক হচ্ছে গ্রামীণফোনের সিমকার্ড

কিন্তু সোমবার সকালে টিংকুর মোবাইল থেকে ফের জোসেফের মোবাইলে হত্যার হুমকি আসলে দুই বন্ধু আবারও গ্রামীণফোন সেন্টারে এসে এর প্রতিকার চান। কিন্তু গ্রামীণফোন সেন্টার কর্তৃপক্ষ ওইদিনও বিষয়টির সমাধান দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে সোমবার বেলা আড়াইটার দিকে একই সমস্যার ভূক্তভোগী অর্ধশত গ্রাহক আম্বরখানা গ্রামীণফোন সেন্টারের সার্টার লাগিয়ে কর্তৃপক্ষকে অবরোধ করে রাখেন। পরে গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ ৫ কার্যদিবসের মধ্যে বিষয়টি সমাধানের আশ্বাস দিলে বিকেল সাড়ে ৪টার র‌্যাব-পুলিশের মধ্যস্থতায় বিক্ষুব্ধ গ্রাহকরা অবরোধ তুলে নেন।

এ বিষয়ে আম্বরখানা গ্রামীণফোন সেন্টারের ইনচার্জ রুম্মান আহমদ জানান, গত একসপ্তাহ ধরে হ্যাকাররা গ্রামীণফোন নাম্বার হ্যাক করে ভিআইপিসহ বিভিন্ন পেশার লোকজনকে হুমকি দিচ্ছে। এ নিয়ে আমাদের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা হয়েছে। আগামী ৫ কার্যদিবসের মধ্যে সমস্যাটি সমাধানের চেষ্টা করা হবে বলে গ্রাহকদের জানিয়েছি।

এ ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হবে বলেও জানান রুম্মান। বিমানবন্দর থানার ওসি খায়রুল ফজল জানান, নাম্বার হ্যাক করে এসএমএস দেয়ার ঘটনায় গ্রাহকরা নানা বিড়ম্বনা ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। তাই তারা গ্রামীণফোন সেন্টারে এসে সার্টার লাগিয়ে বিক্ষোভ করেছিল। পরে কর্তৃপক্ষের আশ্বাসের ভিত্তিতে সমস্যার সমাধান করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ