পিসি ফরম্যাট না করে ভাইরাস দূর করবেন কিভাবে?

8
1106

আমরা প্রায় সবাই জানি,এক্সপি সেটাপ দিলে শুধু সিস্টেম ড্রাইভ(যে ড্রাইভে অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করা আছে) ফরম্যাট হয়,অন্য ড্রাইভগুলো অপরিবর্তিত থাকে।ফলে সিস্টেম ড্রাইভে যদি ভাইরাস থাকে,তা ডিলিট হয়ে যায়,কিন্তু অন্য ড্রাইভের ভাইরাস গুলো আগের মতই পিসিতে সংসার বেঁধে বসে থাকে।তার উপর এসব ভাইরাস যদি হয় এতই মারাত্বক যে,তার জন্য এন্টিভাইরাসই ইন্সটল করা যায় না,তাহলে পিসির এসব ভাইরাস পিসিতেই থাকবে।তাহলে কি পিসি ফরম্যাট করা (কম্পিউটারের সব ডাটা জলাঞ্জলি দেয়া)ছাড়া কোনো উপায় নেই?অবশ্যই আছে।বন্ধুরা,এই বিষয়টি নিয়েই আমার আজকের এই লেখা।(আমার পূর্ববর্তী পোষ্টের লেখা অনুযায়ী আপনি পিসিকে ভাইরাসমুক্ত রাখতে পারলেও আপনার পিসিতে আগে থেকেই ভাইরাস থাকলে এবং তা উপরোল্লিখিত মারাত্বক কাজগুলো করলে আপনি নিম্নোক্ত পন্থা অবলম্বন করে উপকৃত হবেন বলে আশা করি।)

সাধারনত যে সকল ভাইরাস আপনার পিসিতে এন্টিভাইরাস ইন্সটল করতে দেয় না,তারা আপনার পিসিতে সক্রিয় আছে বলেই তারা আপনাকে এন্টিভাইরাস ইন্সটল করা থেকে বিরত রাখতে পারে।সুতরাং,এমন কিছু করতে হবে যেনো,ভাইরাসগুলো সক্রিয় না থাকে।

পিসিতে ভাইরাস তখনই সক্রিয় হয়,যখন আপনি আপনার পিসির ড্রাইভগুলো ওপেন করেন।ধরুন,আপনার পিসিতে সিস্টেম ড্রাইভ ছাড়া অন্য ড্রাইভে ভাইরাস আছে।এখন আপনি যদি এক্সপি সেটাপ দিয়ে আবার আপনার ড্রাইভগুলো ওপেন করেন,তাহলে ভাইরাসগুলো আবার সক্রিয় হবে।সুতরাং যা করতে হবে……

১)আপনি এক্সপি সেটাপ দিন।

২)এখুনি মাদারবোর্ডের সিডির সফটওয়্যারগুলো(সাউন্ড,ল্যান,চিপসেট,ভিডিও) ইন্সটল করবেন না।

৩)এক্সপি সেটাপের পরে প্রথম যখন কম্পিউটারটি অন করবেন তখন “MY computer” এ বা এর কোনো ড্রাইভেও যাবেন না।এর ফলে আপনার পিসির ভাইরাসগুলো সক্রিয় হবে না।সরাসরি টাস্ক ম্যানেজার অন করুন(Alt+Ctrl+Delete প্রেস করুন)।ভাইরাসের জন্য যদি আপনার টাস্ক ম্যানেজার ডিজেবল থাকে,সেটাপের পর এনাবল হবে।সুতরাং চিন্তার কোনো কারন নেই।

৪)এখান থেকে new task বাটনে ক্লিক করুন।create new task নামে একটি বক্স আসবে।

৫)এখান থেকে Browse বাটনে ক্লিক করুন।নিচের চিত্রের মতো ব্রাউজিং বক্স আসবে।

৬)এখান থেকেই আপনার এন্টিভাইরাসের ব্যাকআপ ফাইল যেখানে আছে,সেখানে যান এবং যে ফাইল দিয়ে আপনার এন্টিভাইরাসটি সেটাপ করবেন,অর্থা্ত যেটি আপনার এন্টিভাইরাসের সেটাপ ফাইল,তা সিলেক্ট করে open বাটনে ক্লিক করুন।

৭)এখন create new task বক্সটির ok বাটনে ক্লিক করুন।

৮)এবার দেখুন,আপনি আপনার এন্টিভাইরাস ইন্সটল করছেন অবলীলায়।তবে আপনার এন্টিভাইরাসের সেটাপ ফাইলটিই যদি ভাইরাসের জন্য নষ্ট হয়ে যায় সেক্ষেত্রে,অন্য কোনো এন্টিভাইরাসের সিডি অথবা পেনড্রাইভে ব্যাকআপ ফাইল কালেক্ট করুন। তা থেকে টাস্ক ম্যানেজারের new task->browse->পেনড্রাইভ বা সিডির ব্যাকআপ ফাইল ডিরেক্টরী  সিলেক্ট করে open করুন এবং ok বাটনে ক্লিক করে সেটাপ করুন।

৯)পেনড্রাইভ কম্পিউটারে প্রবেশ করানোর সময় shift প্রেস করে রাখুন যেনো তা নিজ থেকেই ওপেন না হয়।

আমি মূলত এন্টিভাইরাস ইউজ করার পক্ষপাতী না(এক্ষেত্রে আমার পূর্ববর্তী পোষ্ট দ্রষ্টব্য)।তবে পিসিতে যদি ভাইরাস আগে থেকেই থাকে সেক্ষেত্রে তো এন্টিভাইরাস ইন্সটল করতেই হবে।

আমার পূর্ববর্তী পোষ্টে ,এন্টিভাইরাস ছাড়া কিভাবে এক্সটারনাল ডিভাইসের ভাইরাস থেকে পিসিকে মুক্ত রাখা যায়,সে সম্পর্কে লিখেছিলাম।কিন্তু,এন্টিভাইরাস ছাড়া কিভাবে ইন্টারনেটের ভাইরাস থেকে পিসিকে মুক্ত রাখা যায়? পরবর্তী পোষ্টে এ নিয়ে লিখার চেষ্টা করব,ইনশাআল্লাহ।ততদিন পর্যন্ত বিদায়।ভালো থাকবেন সবাই………

8 মন্তব্য

  1. apnar lekha amar khub bhalo lage, amar ekti smossa holo amar computer theke (xp service pack 2) nokia pc suite 7.1.60.0 uninstall korte pachina error message ti diche ` installation oparation failed the windows installer service could not be accessed, this can acur if you are runing windows is safe mode ,or if the windows installer is not correctly installed , contact your support personal for assistance` amar onurodh e nie ba ei dhoroner bisay nie jodi kono post lekhen khub upokrita hobo, dhonnobad.

একটি উত্তর ত্যাগ