এক্ষুনি আপনার ওয়েবসাইটের বাউন্স রেট কমিয়ে নিন

13
411

আস্‌সালামু আলাইকুম। কেমন আছেন সবাই? আশা করি সবাই আল্লাহ্‌র অশেষ রহমতে ভালো আছেন। দুই দিন পর আবার আপনাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ পোষ্ট নিয়ে হাজির হলাম। আশা করি আপনাদের কাছে পোষ্টটি গুরুত্বপূর্ণই মনে হবে। আজকে আমি আপনাদের ওয়েব সাইটের বাউন্স রেট সম্পর্কে একটু ধারণা দিব এবং কিভাবে বাউন্স রেট কমানো সম্ভব তাও জানাবো।

আপনি আপনার সাইটটি পুনঃতৈরী ব্যতীত কিভাবে বাউন্স রেট কমাবেন? অথবা একটু অন্যভাবে বললে, আপনি কিভাব ভিজিটরকে আপনার সাইটের অন্যান্য পেজে ভিজিট করতে প্রলুব্ধ করবেন? এটা আসলেই খুব সহজ। আসুন এই বার দেখি।

খুব সহজেই এই বিষয়ে একটা উত্তর দেওয়া সম্ভব। কিন্তু মানুষ একটু বিস্তারিত দেখলেই মনে হয় ভালোভাবে বুঝতে পারে।

এখানে একটি চটজলদি প্রক্রিয়া দেখাচ্ছিঃ

 )          আপনার সাইটে হাইলি টার্গেটেড ওয়েবসাইটের ভিজিটর নিয়ে আসুন।

)          মাথা নষ্ট কন্টেন্ট তৈরী করুন। মাথা নষ্ট মানে খারাপ অর্থ না। অর্থাৎ খুব ভালো মানের কন্টেন্ট লিখুন।

)          আপনার সাইটের অন্যান্য পেজের সাথে ইন্টার্নাল লিঙ্ক ঠিক রাখুন। ভিজিটর যেন লিঙ্ক দেখে সেটিকেও যেন গুরুত্বপূর্ণ মনে করে এবং সেই পেজেও যায়।

)          আপনার সাইটটি যেন খুব বেশী পরিমাণ ইউজার ফ্রেন্ডলী হয় এবং মানুষের কাছে আরও আকর্ষণীয় করে তুলুন।

)          ভিজিটর কেন আপনার সাইটে থাকবে এবং কেন আপনার সাইটে আবার ফিরে আসবে – পোষ্টের মাধ্যমে এমন মুন্সিয়ানার পরিচয় দিন।

আসুন হাই বাউন্স রেট কমানোর আরও কিছু নির্দেশনা একটু বিস্তারিত দেখে নেইঃ

 )          পেজ ডিলিট করে হাই বাউন্স রেট কমানঃ আপনি যদি আপনার সাইটের সকল পেজের জন্য বাউন্স রেটের দিকে একটু ভালোমত লক্ষ্য করে থাকেনই, তবে দেখবেন কিছু পেজ খুভ ভালো ফল দিচ্ছে আবার কিছু পেজ মোটেও না। অর্থাৎ, কিছু পেজে ভিজিটর আছে আবার কিছুতে একদমই নেই। তার মানে হচ্ছে আপনি এখনই সেই পেজগুলোকে ডিলিট করে বা সাইট থেকে বাদ দিয়ে হাই বাউন্স রেট কমিয়ে নিতে পারেন।

একটু অপেক্ষা করুন!!! আপনি কি আসলেই পেজগুলোকে বাদ দিয়ে দিবেন? এর উত্তরটাও আমি দিয়ে দিচ্ছি। অবশ্যই। যদি আপনার সাইটের পেজগুলো ভালো ফলাফল দিতে নাই পারে এবং আপনি যদি সেগুলোর উন্নতি ঘটাতেও ব্যর্থ হন তাহলে সেই পেজগুলো ব্যতিতই আপনার সাইট ভালো হবে। আপনার সাইটের বাজে পেজগুলো ভিজিটরকে ভালো পেজে যেতেও অনীহা প্রদান করবে। তাই আপনার সাইটের বাউন্স রেট কমাতে এক্ষুনি সাইটের অপ্রয়োজনীয়, কম তথ্য সম্বলিত বাজে পেজগুলোকে রিমুভ করে দিন।

)          কন্টেন্ট ডিলিট করে হাই বাউন্স রেট কমানঃ অনেকেই হয়তো মনে করে থাকেন যে, একটি বিশদ বর্ণনাযুক্ত সেল্‌স পেজ কম বর্ণনাযুক্ত সেল্‌স পেজ এর চেয়ে বেশী ভালো ফল প্রদান করে। মনে করুন, আপনি মিষ্টির দোকান থেকে মিষ্টি কিনবেন। সেই উদ্দেশ্যে কয়েক ঘন্টা সময় ব্যয় করে হাজার হাজার শব্দ ব্যবহার করে মিষ্টির বিবরণ সহকারে দোকানে তা প্রদান করলেন। কিন্তু আপনার পরিশ্রম তখনই বৃথা যাবে যখন দোকানী বা অন্য কাউকে দেখবেন আপনার দরকারি মিষ্টির নাম ব্যতিত বর্ণনা কেউ পড়েও দেখছে না। কি তাই নয় কি?

আমি এই বিষয়ে বলতে চাই, কন্টেন্ট এর মাধ্যমেও ওয়েব সাইটের বাউন্স রেট কমানো যেতে পারে। একটু “উপরের বর্ণনার” মিষ্টি তে যান। মিষ্টির বর্ণনা দরকার নাইতো, শুধু মিষ্টির নাম লিখুন এবং আপনার চাহিদা লিখুন। তাহলেই তো দোকানী বুঝে গেলো। আপনারো কষ্ট কম আর দোকানীও খুশী। বঙ্কিম মতে – “অপ্ল কথায় কাজ হইলে বেশী কথার দরকার কি?”

একটু রূপক ব্যবহার করেছি। আশা করি কারো বুঝতে সমস্যা হবে না। আর সমস্যা হলে কমেন্ট বক্স তো আছেই।

)          স্ট্রীমলাইনড্‌ বা গোছানো লে-আউটের মাধমে বাউন্স রেট কমানঃ আমি এমনটা দেখেছি, অনেক ওয়েবসাইটের লে-আউট ভালো হয় না। আপনার সাইটটিকে রিলেটেড এবং সফল একটি সাইটের সাথে একটু সময় নিয়ে তুলনা করে দেখুন। আপনি নিশ্চয়ই দেখবেন, যে ওই সাইটটির লে-আউট আপনার সাইট থেকে আরও ভালো, আরও স্ট্রিমলাইনড্‌। কিন্তু কেন? কারণ, একটি ভালো এবং গোছানো স্ট্রিমলাইনড্‌ লে-আউট মারাত্মক কাজে দেয়। একটি গোছানো লে-আউট ভিজিটরকে আপনার সাইটের কন্টেন্ট এর উপর ফোকাসড্‌ থাকতে সহায়তা করে। আর অগোছালো সাইট থেকে ভিজিটরকে আপনার সাইট থেকে দূরে ঠেলে দেয়। আপনার সাইটের নেভিগেশনের দিকে আলাদা করে লক্ষ্য রাখুন। আর্টিকেল এর নিচের দিকে অন্যান্য আর্টিকেল সম্পর্কে জানার ব্যবস্থা রাখুন যেন ভিজিটর তা দেখে এবং সেখানে যেতে প্রলুব্ধ হয়। ভালো আর্টিকেল এর মাঝখানে রিলেটেড অ্যাড এর ব্যবস্থা রাখতে পারেন। ভিজিওটর যদি তা দেখে সেখানে যেতে চায় বা যেতে পারে।

সব কথার শেষ কথা, আপনি যদি আপনার ভিজিটরগণের দৃষ্টি খুব ভালোভাবে আকর্ষণ করতে সমর্থ হন, তবে আপনার সাইটের বাউন্স রেট কমতে থাকবে।

অনেক সময় ধরে পকপকাইলাম। এই বার থামি। অনেকেই মনে হয় বাউন্স রেট দেখতে দেখতে বিরক্ত হইয়া গেছেন মামুরা। এইবার আমি খিচ খাই। যা কওনের আপনেরাই কন। (একটু মজার উদ্দেশ্যে অন্য রকম ভাষায় এইটুকু বললাম)।

সবাইকে ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন।

আমার ব্লগে টিউন করার জন্য আপনাদের সকলকেই আমন্ত্রণ। এই পোষ্টটি প্রথমে এখানে আমার ব্লগে আমার দ্বারা প্রকাশিত।

13 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ