ফ্রিল্যান্সিং সাইট Elance থেকে কাজ পাওয়া অনেক সহজ…

6
525

ফ্রিল্যান্সিং কি? উ: সহজ কথায় ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে, এমন একজন ব্যক্তিযিনি কোন প্রতিষ্ঠানের সাথে দীর্ঘস্থায়ী চুক্তি ছাড়া কাজ করেন।একজন ফ্রিল্যান্সারের কাজের ধরন তার স্বাধীনতার উপর নির্ভর করে।

ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস: ইন্টারনেটে অনেকগুলো জনপ্রিয় ওযেবসাইট রয়েছে যারা আউটসোর্সিং এর সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়।আর এ সকল সাইটকে বলা হয় ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস। ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেসে থাকে দুই ধরনের ব্যবহারকারী এবং এসব ওয়েবসাইটে যারা কাজ জমা দেয় তাদের কে বলা হয় buyer বা Client এবং যারা এই কাজগুলো সম্পন্ন করে তাদের কে বলা হয় Freelancer,provider,seller অথবা কোন কোন ক্ষেত্রে Coder.

বিড কি ? একটি কাজ সম্পন্ন করার জন্যে একাধিক ফ্রিল্যান্সাররা আবেদন করে,যাকে বলা হয় বিড।বিড করার সময় আপনাকে কত টাকা/কত দিনের মধ্যে করতে পারবেন ইত্যাদি উল্লেখ্য্ করতে হবে।

নির্বাচিত ফ্রিল্যান্সার হওয়া: অনেক ফ্রিল্যান্সারের মধ্যে থেকে ক্লায়েট যাকে ইচ্ছা তাকে নির্বাচন করতে পারে।পূর্ব কাজের অভিজ্ঞতা ,টাকার পরিমান,এবং বিড করার সময় ফ্রিল্যারের মন্তব্যের উপর ভিত্তি করে ক্লায়েট একজন ফ্রিল্যান্সার কে নির্বাচন করে।

এসক্রো(Escrow) কি ? একজন ক্লায়েট সফল ভাবে কাজটি সম্পাদন করার পর সম্পূর্ণ টাকা কাজ প্রদানকারী ওই এসক্রো নামক এ্যাকাউন্টে জমা করে দেয়।তার পর সফল ফ্রিল্যান্সার তা পুরাপুরি সম্পূর্ন করার পর তার পেমেন্ট ওই এসক্রো থেকে বুঝে পায়। আর এই সম্পূর্ণ সার্ভিসের জন্যে একটি নির্দিষ্ট অংশ(10% বা 15%) ওই সাইটকে ফি বা কমিশন হিসেবে দিতে হয়।

Elance এর বিবরনী:
Elance হল অন্যতম বৃহত্তর অনলাইন ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস।বর্তমানে এখানে সবচেয়ে ভালো কাজ পাওয়া যায় এবং এখানে কাজের টাকার পরিমানটাও অনেক বেশি। এখানেও চুক্তি ভিত্তিক অথবা ঘণ্টা প্রতি কাজ পাওয়া যায়। বাংলাদেশের কম সংখ্যক লোকই elance এ কাজ করে থাকে। কারন এখানে বেশি সংখ্যক কাজের জন্য অ্যাপ্লাই করতে সাবস্ক্রিপশন ফি দিতে হয়। কিন্তু এবং দুনিয়াজুড়ে নামকরা সকল ফ্রিল্যান্সিং কোম্পানি elance এ কাজ করেন ।
এক্ষেত্রে  কিন্তু আমাদের বাংলাদেশিরাও পিছিয়ে নেই । elance এ বাংলাদেশীদের অবস্থান মোটামুটি ৪ নাম্বারে (ইন্ডিয়া, উক্রেইন, পাকিস্তান, বাংলাদেশ)। elance এ সব চেয়ে বড় যে সুবিধা আছে সেটা হল ‘ESCROW System’ . এটি এমন একটা ব্যবস্থা , যেখানে ক্লায়েন্ট ও প্রোভাইডার , দুই পক্ষেরই একটা নিরাপদ পেমেন্ট ব্যবস্থা থাকে। এই সিস্টেম এ টাকা প্রথমে এখানে জমা হয় , এবং কাজ শেষে ক্লায়েন্ট টাকা ছাড় করে দেন। কিন্তু কোন কারনে কোনো পক্ষ যদি সমস্যা সৃষ্টি করে তাহলে elance এ আপিল করা যায় , তখন elance সকল মেসেজ পরীক্ষা-নিরিক্ষা করে জয়ী পক্ষকে টাকা দিয়ে দেয়।
*** গ্রুপ ভিত্তিক কাজ করার জন্যে এখান থেকে সাইন আপ করুন…
এছাড়াও বিস্তারিত পাবেন ফেইজবুকে

6 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ