গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

1
383
এটি 283 পর্বের গেমস জোন সিরিজ টিউনের 78 তম পর্ব
গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমওয়ালা

হ্যালো! আমি ফাহাদ! গেমওয়ালা হয়ে টিউনারপেজে রয়েছি অনেকদিন ধরেই। আমি একজন পুরোনো টিউনার এই টিউনারপেজের। গেমস নিয়ে রয়েছি আমি তোমাদেরই সাথে। আশা করি আরো বেশ কিছুদিন থাকতে পারবো।
গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

কেমন আছেন? নিয়ে এলাম গেমস জোনের আরেকটি পর্ব। আজকেও থাকছে একটি শুটিং গেমস। আপনারা তো জানেনই শুটিং এবং রেসিং আমার পছন্দের।

 

ইদানিং দেখছি গেমস জোন নামে অনেকেই গেম নিয়ে টিউন করছেন। ভালই। তাদের আমি স্বাগত জানাই। এতদিনে একটি প্রতিযোগীতা হবে! হা হা হা। তবে ওই সব গেমস জোন এর ভীড়ে আপনারা যাতে এই গেমওয়ালার অরিজিনাল গেমস জোন কে যাতে ভুলে না যান তাই গেমস জোনকে অন্যদের থেকে আলাদা করার চেষ্টা করছি। যতটা পারা যায় তথ্য দিয়ে গেমস জোনকে সমৃদ্ধ করার চেষ্টা করছি। এরপর আপনারাই বলবেন কোন গেমস জোনটি ভাল। :P

 

আজকের গেমস ব্রিঙ্ক।

 গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

 

ব্রিঙ্ক একটি ফার্স্ট পারসন শুটার ভিডিও গেম যেটি ডেভেলপ করেছে স্প্যাল্‌শ ডেম্যাজ। গেমটি মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, প্লে-স্টেশন ৩ এবং এক্স.বক্স ৩৬০ গেমস কনসোল এর জন্য মে ১০, ২০১১ তে রিলিজ পেয়েছে। গেমটিতে ২টি পক্ষ রয়েছে, যারা অটোপেইন সিটি “আর্ক” এ যুদ্ধ করে। যেটি একটি ফ্লোটিং সিটি যা বন্যা কবলিত পৃথিবীতে অবস্থিত। গেমটি অনলাইনে ১৪ জন মাল্টিপ্লেয়ার এ খেলা যাবে। এক সাথে খেলতে পারবেন অথবা বিপক্ষেও খেলতে পারবেন। আজ পযর্ন্ত গেমটির ২.৮ মিলিয়ন কপি বিক্রি হয়েছে।

 

 

Brink

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

 

Developer:

Splash Damage

 

 

Publisher:

Bethesda Softworks

 

 

Engine:

id Tech 4

 

 

Version:

1.0.23692.48133

 

 

Platform:

Microsoft Windows,

PlayStation 3,

Xbox 360

 

 

Release Date:

 

May 10 – 13, 2011

 

 

Mode:

Single-Player,

Multiplayer

 

 

Rating:

ACB: MA15+

CERO: D

ESRB: T

OFLC: R16

PEGI: 16

USK: 16

 

Trailer Video:

www.youtube.com/watch?v=xYvAAb2qEFk

 

www.youtube.com/watch?v=NrqhykRsKVI

 

www.youtube.com/watch?v=H8HYs90WXms

 

 

System Requirements:

 

Minimum:

 

WinXP SP3,

Core 2 Duo 2.4GHz,

2GB Ram,

512MB Graphic

8GB Free HDD

 

 

Recommended:

Win7,

Core i3 2.0GHz

2GB Ram,

1GB Graphic,

8GB Free HDD

 

 

প্লট:

 

ব্রিঙ্ক গেমটির পটভূমি হচ্ছে ২১শ শতাব্দির মাঝামাঝিতে মানুষ কতৃর্ক তৈরি একটি প্ল্যানেট “আর্ক” এ। গ্লোবাল ওর্য়ামিং এর কারণে পৃথিবী তখন মানুষের বসবাসের একদম অযোগ্য। তাই পৃথিবীর মানুষ “আর্ক” কেই বসবাসের একমাত্র জায়গা হিসেবে বেছে নেয়। কিন্তু সমস্ত পৃথিবীর মানুষের জায়গা হবে না আর্ক তে। তাই আর্কে বসবাস নিয়ে শুরু আরেকটি বিশ্বযুদ্ধ। তবে ঘটনাক্রমে আর্ক এর সাথে পৃথিবীর যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। এতে আর্ককে মানুষের বসবাসের লিমিটের উপরে মানুষ এসে পড়ে। প্রায় বস্তির মতো মানুষের এখানে সেখানে বসবাস করতে থাকে। তবে সরকারি লোকগুলোর বাসার সাইজ সেই রকম। তাই সরকারি লোক এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে শুরু হয় যুদ্ধ।

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

সাধারণ মানুষের লিডার হয় “ব্রাদার চ্যান”। তাদের কাজ হয় সরকারি লোকদের সম্পদ লুটিয়ে মৌলিক চাহিদাগুলো সমস্ত আর্কবাসিদের সাথে শেয়ার করা। আর অন্য দিকে সরকারি লোকদের লিডার হয় “ক্যাপটেইন মোকোইনা”। তাদের উদ্দেশ্য যেকোন ভাবে সাধারণ মানুষদের থামানো। এদের কাজ হল চ্যানের হাত থেকে সরকারি সম্পদের রক্ষা এবং এদের উপর দখল।

গেমটিতে আপনাদের সরকারি দল অথবা সাধারণ মানুষের দল যেকোনো একটি দলের হয়ে খেলতে হবে। দুই দলের দুই রকম মিশন।

 

 

গেমপ্লে:

 

গেমটিতে “প্রটোটাইপ” গেমটির মতই একটি সিস্টেম যুক্ত রয়েছে। যাকে স্মার্ট সিস্টেম বলা হয়। স্মার্ট বাটনটি চাপলে অটোমেটিক অবজেক্ট পুরণ হয়ে যাবে। স্মার্ট এর পাওয়ার রিচার্জ্যাবল।

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমটিতে আপনি খেলার জন্য পাবেন ৪টি শ্রেণীর ক্যারেক্টার। সোল্ডার, মেডিক, ইঞ্জিনিয়ার এবং ওপারেটিভ।

 

সোল্ডার: সোল্ডারদের প্রাইমারী মিশন হলো গুরুত্বপূর্ণ অবজেক্ট ধ্বংস করা বোমার সাহায্যে। এছাড়াও দলের গুলি সরবরাহ এদের উপর বর্তায়। সোল্ডার সাধারণ গ্রেণেড ছুঁড়ে শত্রুদের বধ করে। যেমন মটোলভ ককটেল, ফ্ল্যাশব্যাঙ্ক, এবং সি৪ স্যাটেল চার্জ বোমা ফিট করে। গেমটি তারাই একমাত্র শ্রেণী যাদের কখনোই গুলির অভাব হয় না।

 

ইঞ্জিনিয়ার: এদের কাজ হলো বিভিন্ন বিল্ডিং এর সম্পর্কে বিস্তারিত খোঁজ নেয়া, রিপেয়ারিং, যুদ্ধক্ষেত্রে বিভিন্ন আপগ্রেড সরবরাহ ইত্যাদি। এছাড়াও ইঞ্জিনিয়ার রা শত্রুপক্ষের ফিট করা ভুমিমাইন বোমা ডিসআর্ম করতে পারে।

 

 

মেডিক: নাম শুনেই বুঝতে পারছেন এই শ্রেণীর কাজ কি। এদের কাজ হল আহত টিমমেটদের রিটিউন করা। এছাড়াও টিমমেটদের চিকিৎসা গেজেট সরবরাহ করাও এদের কাজ। গেমটির মধ্যে এরাই একমাত্র শ্রেণী যারা নিজেরাই নিজেদের হেলথ রিচার্জ করতে পারে।

 

ওপারেটিভ: ব্রিঙ্ক গেমটির গুপ্তচর হলো ওপারেটিভ। তারা পিসি হ্যাক করতে পারে মিশন অবজেক্ট পুরণ করার জন্য, শত্রুদের ধোঁকা দেওয়ার জন্য শত্রুও সাজতে পারে। গেমটি তারাই একমাত্র শ্রেণী যারা হিডেন ল্যান্ডমাইন বোমা খুঁজতে পারে।

 

 

আপনি আপনার এক্সিপেরিয়েন্স পয়েন্ট দিয়ে বিভিন্ন গেজেট আপগ্রেড করাতে পারেন এবং স্পেশাল মুভমেন্ট ও আপগ্রেড করতে পারেন। বিভিন্ন অবজেক্ট বিভিন্ন ভাবে পুরণ করে কম/বেশি এক্সিপেরিয়েন্স পয়েন্ট আপনি অর্জন করতে পারেন। প্রত্যেকটি ক্যারেক্টার এবং শ্রেণী নিয়ে খেলার শুরুতে বেসিক টুলটিক পাবেন আপনি।

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

 

 

 

রিলিজ এবং মাকেটিং:

 

গেমটি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শুরু তে গেমটি ২০০৯ সালের স্পিং এ রিলিজ করার চিন্তা করেন। তবে এটিকে পিছিয়ে দেওয়া হয় ২০১০ সালের শেষের দিকে। তবে আবারো গেমটির রিলিজ ডেট পিছিয়ে দেয় মে ১৭, ২০১১ সালে। তবে ২০১১ সালে এপ্রিল মাসে, গেমটি রিলিজের এক মাস আগে তারা ঘোষণা দেয় গেমটির রিলিজ ডেট ১ সপ্তাহ এগিয়ে আনা হয়েছে। অবশেষে গেমটি ১০ই মে, ২০১১ সালে রিলিজ পায়।

 

কোয়াক’কন টিতে ২০১০ সালে নির্মিতা প্রতিষ্ঠান ঘোষণা দেয় যে গেমটি প্রি-অর্ডার কৃত ক্রেতারা গেমটি স্পেশাল এডিশন পাবেন। এতে থাকছে বোনাস লেভেল সহ, ডুম, ফলআউট, সাইকো এবং স্পেস অপস গেম প্যাক। তবে গেমটি রিলিজের কিছুদিন পরই স্পেশাল এডিশনটি সাধারণ ক্রেতাদের কাছেও খুলে দেওয়া হয় একটু উচ্চ দামে।

 

 

রিসিপশন:

 

Aggregate scores

Aggregator

Score

GameRankings

(PS3) 69.63%[19]
(X360) 69.38%[20]
(PC) 68.94%[21]

Metacritic

(PS3) 72/100[22]
(PC) 70/100[23]
(X360) 68/100[24]

Review scores

Publication

Score

1UP.com

D[25]

Eurogamer

8/10[26]

GameSpot

6/10[27]

GameSpy

[28]

GamesRadar

8/10[29]

IGN

6/10[30]

Joystiq

[31]

Brink received mixed to average reviews. Aggregating review websites

 

ব্রিঙ্ক গেমটি ভিন্ন ভিন্ন এভারেজ রিভিউ পেতে শুরু করে। গেম-রেঙ্কিং এবং মেটাক্রিটিক ওয়েবসাইট গেমটিকে প্লে-স্টেশন ৩ এর জন্য ৬৯.৬৩% = ৭২/১০০, এক্স.বক্স ৩৬০ এর জন্য ৬৯.৩৮% = ৬৮/১০০ এবং পিসি এর জন্যে ৬৮.৯৪% বা ৭০/১০০ স্কোর দেয়। আরেকটি ওয়েবসাইট ইউরোগেমার একে ৮/১০ স্কোর দেয়। ওদিকে গেমস্পাই একে ৫ তারার মধ্যে ৪ তারা স্কোর দেয়। ভিডিওগেমার.কম একে ৮/১০, দ্যা গার্ডিয়ান একে ৪/৫, অফিসিয়ার এক্স.বক্স ম্যাগাজিন একে ৪/৫, গেমিং নেক্সাস একে বি+ স্কোর দেয়। অনেকেই ব্রিঙ্ক কে বেষ্ট মাল্টিপ্লেয়ার গেম বলে আখ্যায়িত করেন “ব্যাটলফিল্ড: ব্যাড কোম্পানি ২” এর পরেই। তবে অমিমাংসিত গেম এবং অসম্পূর্ণ গেমপ্লে এর জন্য অনেক নেগেটিভ রিভিউ ও পেতে থাকে ব্রিঙ্ক গেমটি।

 

 

 

 

ডাউনলোড করুন:
Fileserve
http://linksafe.me/d/2435f6fb4b
http://linksafe.me/d/24ca91812f
http://linksafe.me/d/8b30a56242
http://linksafe.me/d/bfb5e395e3
http://linksafe.me/d/4b7bdcf2a3
http://linksafe.me/d/04822a6405

——————————-
Filesonic
http://linksafe.me/d/dbca8c12be
http://linksafe.me/d/085de94125
http://linksafe.me/d/43d7672e9d
http://linksafe.me/d/7be2231fac
http://linksafe.me/d/2add1f97f2
http://linksafe.me/d/6929822bbc

——————————-
Wupload
http://linksafe.me/d/b549b52796
http://linksafe.me/d/fc586f4ab4
http://linksafe.me/d/3c43baaa0f
http://linksafe.me/d/50bbdaf26b
http://linksafe.me/d/6bf17b2243
http://linksafe.me/d/22b1e0fb2c

——————————-
Rapidshare
http://linksafe.me/d/c1750ca08d
http://linksafe.me/d/58769a05a5
http://linksafe.me/d/5178bf9cb2
http://linksafe.me/d/3c294f192c
http://linksafe.me/d/81419a9846
http://linksafe.me/d/578dc27d2d

——————————-
Filejungle
http://linksafe.me/d/1af287fe3a
http://linksafe.me/d/a22117e15e
http://linksafe.me/d/e52e1a24f6
http://linksafe.me/d/35e9a6f08e
http://linksafe.me/d/fa2f7bd7b2
http://linksafe.me/d/ea567ba4ca

 

 

 

তা কেমন লাগলো আজকের গেমস জোন? একটু বড় করেছি গেমস জোনটি। আজ থেকে এভাবেই হবে গেমস জোনের আগামী পর্বগুলোও।

 

 

ধন্যবাদ। :D

 

Next Episode:

গেমস জোন: ব্রিঙ্ক (২০১১)

The Darkness II

 

:D :D :D :D

 

 

 

 

 

Series Navigation << গেমস জোন: সিরিয়াস স্যাম ৩ (২০১১)গেমস জোন: দ্যা ডার্কনেস ২ (২০১২) >>

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ