সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

24
2260

বিসমিল্লাহি্র রাহমানির রাহিম

শুরুতেই কিছু কথা বলে নেই। একটা ইট একা কিছুই নয় কিন্তু হাজারো ইট একসাথে হয়ে তৈরী করে শক্তিশালী কাঠামো। আমরা কেউই তো আর সবজান্তা নই তাই ঠিক একই ভাবে একজনের জ্ঞান একা হয়ত কিছুই নয় কিন্তু অনেক জনের জ্ঞান একসাথে হলে নতুন নতুন কিছু উদ্ভাবন হয়। প্রত্যেকেরই অন্যের কাছে কিছু না কিছু শেখার আছে। তাই আমার মনে হয় শেয়ারিং এর মাধ্যমে সার্বিক ভাবে সকলের জ্ঞানের পরিধি বাড়ানো সম্ভব। তাই আমি যা জানি তা আপনাদের জানাতে চায় আর আপনারা যা জানেন তা আপনাদের কাছ থেকে শিখতে চায়। অন্যান্য দেশ প্রজুক্তিতে অনেক এগিয়ে গেছে, আমার মনে হয় আমারও এভাবেই এগিয়ে যাব এবং সেই দিন খুব বেশী দূরে নয়।

সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

অনেক প্যাঁচাল পারা হল এবার আসল কথাই আসি। আমি এ পর্যন্ত অনেক সফটওয়্যার ট্রাই করেছি কিন্তু কোনটাতেই তেমন সুফল পাইনি। আর ঝামেলাও অনেক। তাই আজ আমি আপনাদের সাথে যেই সফটওয়্যারটি শেয়ার করব সেটা দিয়ে আপনি সবচেয়ে সহজ উপায়ে আপনার পেনড্রাইভ দিয়ে কম্পিউটার এর অপারেটিং সিস্টেম (Windows 7/8) সেটাপ দিতে পারবেন।

তবে চলুন মাত্র ৭১৬ কে.বি. এর সফটওয়্যারটি এখনি ডাউনলোড করে কাজ শুরু করে দেই। সফটওয়্যারটি পোর্টেবল তাই ইন্সটল এর কোনো ঝামেলা নেই। এখান থেকে ডাউনলোড করে নিন।

ধাপ ১ – প্রথমে জিপ ফাইলটি আনজিপ করে নিন। তারপর ফাইলটি রান করুন। দেখবেন এরকম স্ক্রীন আসবে

সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

 

ধাপ ২ – এরপর আপনার পেনড্রাইভ সিলেক্ট করে Quick Format  এ টিক দিয়ে Do it করুন।  পেনড্রাইভ ৮ জিবি হলে ভাল হয় তবে ৪ জিবি হলেও চলবে। Windows 8 এর জন্য ৮ জিবি লাগবে।

সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

 

ধাপ ৩ – তারপর যা দিয়ে আপনি বুট করবেন সেটা সিলেক্ট করুন। অর্থাৎ ISO/DVD/Source File সিলেক্ট/ড্রপ করুন এভাবে

সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

 

ধাপ ৪ – এবার কাজ শুরু হয়ে যাবে এবং এমন একটা স্ক্রীন আসবে

সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

 

ধাপ ৫ – আপনার পিসি এবং পেনড্রাইভ এর গতির উপর নির্ভর করে কম-বেশী সময় লাগবে। সব শেষে এমন স্ক্রীন আসবে তারপর ক্লোজ করে আসল কাজ শুরু করে দিন।

সবচেয়ে সহজ নিয়মে তৈরি করুন বুটেবল পেনড্রাইভ

 

ধাপ ৬ – এবার আপনি  Boot Menu তে গিয়ে Pendrive এর Priority প্রথমে দিন। ঝামেলা এড়ানোর জন্য প্রথমবার Restart নেবার সময় পেনড্রাইভ খুলে নিন।

এভাবে আপনি খুব কম সময়ে পিসি বুট করতে পারবেন। পিসি বুট করা শেষ হলে পেনড্রাইভ FAT32 ফরম্যাট এ Format করে নিন। তারপর আরামে আপনার পিসি আর পেনড্রাইভ ইউস করুন। সবাই ভুল করে আমিও তার ঊর্ধ্বে নই। ভুল ত্রুতি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখার জন্য অনুরধ করছি। পোস্টটি কেমন লাগলো তা Comment করে জানাতে ভুলবেন না।

আল্লাহ্‌ হাফেজ

24 মন্তব্য

  1. খুব জরুরি ১ টা পোষ্ট ধন্যবাদ।এবার আমাকে আর একটু হেল্প করুন আমার লেপটপে লোকাল ডিক্স D তে ডিক্স C থেকে সব কপি হয়ে লক হয়ে আছে ।কছুতে লক খুলতে পারছিনা।আবার ডলিট বাকোথায় ও মুভ করতে পারছিনা।ডিক্সক C এর সব পোগ্রাম সচল আছে।এখন আমি কি ভাবে ডিক্স D থেকেপাইল টা ডিলিট করতে পারি।

একটি উত্তর ত্যাগ