গেমস জোন: Dishonored (2012)

1
403
এটি 283 পর্বের গেমস জোন সিরিজ টিউনের 64 তম পর্ব
গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমওয়ালা

হ্যালো! আমি ফাহাদ! গেমওয়ালা হয়ে টিউনারপেজে রয়েছি অনেকদিন ধরেই। আমি একজন পুরোনো টিউনার এই টিউনারপেজের। গেমস নিয়ে রয়েছি আমি তোমাদেরই সাথে। আশা করি আরো বেশ কিছুদিন থাকতে পারবো।
গেমস জোন: Dishonored (2012)

কেমন আছেন? নিয়ে এলাম গেমস জোনের নতুন পর্ব সাথে থাকছে একেবারে তাজা একটি গেমস। আজকের গেমস ডিসঅনার

গেমস জোন: Dishonored (2012)

ডিসঅনার একটি ফাস্ট পারসন স্টেল্‌থ একশন এ্যাডভেঞ্চার ভিডিও গেমস যেটি ডেভেলপ করেছে আরকেইন স্টুডিও’স এবং পাবলিশ করেছে ব্যাথেস্‌ডা সফটওয়াকস। গেমসটি এ মাসে ৯ তারিখ (অক্টোবর ০৯, ২০১২) মানে মাত্র ৬ দিন আগে মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, প্লে-স্টেশন ৩ এবং এক্স.বক্স ৩৬০ গেমস কনসোল এর জন্য রিলিজ পেয়েছে। আমি অলরেডি ডিভিডিও কিনে ফেলেছি! হা হা হা।

 

গেমসটির পটভূমি হিসেবে নেওয়া হয়েছে ডুনওয়াল সিটি বাণ্যিজিক এলাকাকে। ডিসঅনার গেমসটির প্লেয়ার হিসেবে পাচ্ছেন একজন ঐতিহাসিক বডিগার্ড কোর্ভো এট্টানো কে। যে তার ইমপ্রেস এর মৃত্যুর পর এসাসিন হয়ে যায় এবং ইমপ্রেস এর হত্যাকারি এবং তার শত্রুদের খুঁজতে বের হয়। গেমসটি ফার্স্ট পারসন ভিউ থেকে খেলা যায়। মিশনগুলো গুপ্তচরের মতো স্টেল্‌থ মোডে খেলা যাবে অথবা কমবাট মোডেও খেলা যাবে অথবা আপনি চাইলে দুটি মোড একসাথেও খেলতে পারেন। তবে গেমসটির ভিতর কিছু চিহ্নিত টার্গেট কে মেরে আপনি ম্যাজিক্যালি মোড আনলক করতে পারবেন। যার দ্বারা আপনি আল্টিমেইট এসাসিন এ রূপান-রিত হবেন ( অনেকটা ঘোষ্ট রাইডার এর মত)

 

Dishonored

গেমস জোন: Dishonored (2012)

Developer:

Arkane Studios

 

Publisher:

Bethesda Softworks

 

Engine:

Unreal Engine 3

 

Platform:

Microsoft Windows,

PlayStation 3,

Xbox 360

 

Release Date:

October 09 – 12, 2012

 

Genre:

Action-adventure,

Stealth

 

Ratings:

ESRB: M

PEGI: 18

 

Trailer Video:

www.youtube.com/watch?v=IyDvT7XpaBc

www.youtube.com/watch?v=u4b_pKoTebk

www.youtube.com/watch?v=u4b_pKoTebk

 

System Requirements: (Windows XP NOT supported)

Mode

Processor

OS

Ram

V-Ram

HDD

Minimum 3.0GHz Dual Core Win7 4GB 512MB 9GB Free Space
Recommended 2.4GHz Quad Core Win7 4GB 768MB
Maximum 2.6GHz Core i5 Win7 4GB 1GB

 

গেমটি খেলা যাবে ফার্স্ট পারসন ভিউতে। গেমসটিতে আপনাকে স্টেলথ এর উপর জোর দিতে হবে। স্টেলথ এর সাথে আপনার যাবতীয় গেজেট এবং পরিবেশের সাথে খা্‌প খাইয়ে শত্রুদের মোকাবিলা করবে হবে। গেমসটির বিভিন্ন গুপ্ত জায়গায় প্লেয়ার এর পাওয়ার আপ লুকানো অবস’ায় রয়েছে। যেগুলোর মাধ্যমে আপনি প্লেয়ার এর মুভমেন্ট এবং পাওয়ার সমূহ কে আপডেড করতে পারবেন। মিশনগুলোর মধ্যে প্লেয়ারকে একটি হাব এ নিয়ে যাওয়া হবে সেখানে আপনি আপনার পক্ষের যোদ্ধাদের কাছ থেকে পরবর্তী মিশন এর অবজেক্টসমূহ জেনে নিতে পারেন, অল্টারনেট অবজেক্ট সমূহও জেনে নিতে পারেন, অস্ত্রভান্ডার থেকে আনলক করা অস্ত্র সমূহ ও বেছে নিতে পারেন (এটি অনেকটা হিটম্যান গেমস সিরিজের হাইড-আউট বাসার মতই)। গেমসটির পটভূমিতে রয়েছে সমুদ্র বন্দর, রয়াল স্টেট, পোভার্টি স্টিকেন স্টিট এবং একটি বাথহাউস। গেমটি প্লেয়ারকে যেখানে খুশি সেভ করার সুবিধা দেয় সাথে হয়েছে অটোমেটিক চেকপয়েন্ট সেভ সিস্টেম। গেমটি চার ধরণের ডিফিকাল্টি মোডে খেলা যাবে। তবে হেল্‌থ রিজেনারেশন সুবিধাটি শুধুমাত্র ইজি মোড এ-ই পাওয়া যাবে।

 

এছাড়াও ডিসঅনার গেমসটি রোল প্লেয়িং গেম ইলিমেন্ট সিস্টেম সার্পোট করে। যেখানে আপনি ক্যারেক্টার আপগ্রেডিং সিস্টেম এবং মরাল চয়েস অপশন পাবেন। গেমসটি হিটম্যান সিরিজের সুপার সাইলেন্ট রেঙ্কিং মোড এর মতই এডিশনাল কাউকে না মেরে শুধু টার্গেট এবং বসগুলোকে মারা যাবে। তবে এখানেও, বস এবং টার্গেটসমূহ কে “সরাসরি খুন” করা যাবে না। টার্গেট সমূহকে কিডন্যাপ করে গভীর খাদে (মাইন) ফেলে মারতে হবে। প্রত্যেকটি মিশন এই বহু অল্টারনেটিভ রাস-া রয়েছে টার্গেট এ পৌঁছানোর জন্য। এর মধ্য থেকে আপনাকে সর্বউত্তমটি বেছে নিতে হবে। গেমটিতে বাস-বিক জীবনধারা আনা হয়েছে। যেমন, টার্গেট সমূহ একটি মিশন এ-ই ভিন্ন ভিন্ন পোশাকে এবং মুখোশে দেখা যাবে। (যেখানে হিটম্যান সিরিজে টার্গেটসমূহকে একই পোষাকে দেখা যেত এবং একই এরিয়ার ভিতর ঘোরাফেরা করতো)

 

আপনার প্লেয়ার এর উপর দখল এর উপর ভিক্তি করে গেমসটি পটভূমি এবং স্টোরিলাইন পাল্টাবে। চাইলে আপনি প্লেয়াকে ভাল অথবা ডিমন হিসেবে খেলাতে পারবেন। গেমটি উড়াধুড়া ভাবে (ডেল্টা ফোর্স) খেললে মিশনগুলো স্টেলথ মোডের চাইতে  তাড়াতাড়ি পার করতে পারবেন তবে এতে আপনার হেলথ , মানা পয়েন্ট এবং অভারঅল গেম স্টোরিলাইনে ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। যার কারণে আপনাকে একটি সংঘাতময় মিশয়গুলোয় ঠেলে দিবে। যেখানে ডাইরেক্ট যুদ্ধ ছাড়া অন্য কোন উপায় থাকবে না।

 

গেমটি ৬টি একটিভ পাওয়ারস সাপোর্ট করে। এদের মধ্যে ৪টি পাওয়ার সবসময় আপনার কাছে থাকবে। বাকি দুটি ৪০টি কঙ্কাল সংগ্রহ করে আনলক করতে হবে ডিমন মোডে প্রবেশ এর জন্য। এই দুটি পাওয়ার অর্জন করতে পারলে সমস- সুপারন্যাচারাল পাওয়ারসমূহ ও আনলক হয়ে যাবে। যেগুলো আপনি প্রয়োগ করতে পারবেন আপনার মানা পয়েন্ট এর চার্জ এর ভিত্তিকে।

 

সুপার ন্যাচারাল পাওয়ারসমূহের সর্ব উপরে রয়েছে পশেশিয়ন। যেটি একটিভ হলে আপনি গেমসটির কভার পিকচার এর মত কঙ্কাল সরূপ হয়ে যাবেন। বাম হাতে আগুন ধরবে এবং ডান হাতে হরেক রকম অস্ত্র পাবেন। এছাড়াও রয়েছে ডার্ক ভিশন। যেটির মাধ্যমে শত্রুদেরকে দেয়াল ভেদ করে দেখতে এবং তাদের কথাবার্তা শুনতে পারবেন। রয়েছে ডিভররিং সোয়ামস, যার মাধ্যমে ডেডথি ইঁদুর আনতে পারবেন শত্রুদের বধের জন্য। রয়েছে টাইম বেন্ড, যার মাধ্যমে সময়কে ধরে রাখতে পারবেন। রয়েছে ওয়াইন্ড ব্লাস্ট, যার মাধ্যমে বালু ঝড় তৈরি এবং প্রয়োগ করতে পারবেন। এছাড়াও সুপার ন্যাচারাল পাওয়ার সমূহের মধ্যে রয়েছে শ্যাডো কিল। যার সাহায্যে মরা ডেড বডি (শত্রুর) গুলোকে আবারো জিন্দা করে তাদের হাইডআউট সম্পর্কে জেনে নেওয়া। এটি টার্গেট এর অবস’ান সম্পর্কে ধারণা স্পষ্ট করে।

 

 

গেমসটির পটভূমি ডুনওয়াল সিটির বাণ্যিজিক এলাকায়। ১৮০০ সালে । ডুনওয়ালসিটি ১৭০০ সালের লন্ডন এবং ইডেনবার্গ এর জায়গা সমুহ নিয়ে কাল্পনিক ভাবে তৈরিকৃত।

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

গেমস জোন: Dishonored (2012)

 

ডাউনলোড লিংক:

Download Links

 

গেমসটি এক কথায় অসাধারণ। তবে গ্রাফিক্স সেই ২০০৮ সালের মত। খেলে দেখতে পারেন গেমসটি।

 

আজকের গেমস জোন এখানেই শেষ করছি।

 

আগামী পর্বে সবাইকে আমত্রণ রইল।

 

ধন্যবাদ।

 

 

Series Navigation << গেমস জোন: Red Faction: Armageddon (2011)গেমস জোন (ঈদ স্পেশাল): ১৮০০শ জিবি গেমস মেলা! (পর্ব – ২) >>

1 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ