পিএইচপি দিয়ে পার্সোনাল ব্লগ তৈরির টিউটোরিয়ালঃ পর্ব-2

8
447

আজকের টিউটোরিয়ালটি আমি সাজিয়েছি ব্লগের ডাটাবেস এনালাইসিস দিয়ে। আশা করি আজকের টিউটোরিয়ালটি আপনারা উপভোগ করবেন। তাহলে শুরু করা যাক ব্লগের ডাটাবেস বা এনটিটি এনালাইসিস দিয়ে।

এই টিউটোরিয়ালগুলো যারা পিএইচপি শেষ করেছে তাদের জন্য। এই টিউটোরিয়াল থেকে উপকার পেতে হলে আগে বেসিক পিএইচপি আপনাকে শেষ করতে হবে। আপনি পিএইচপি w3school অথবা আমার ব্লগ থেকেও শিখতে পারেন, আমার ব্লগ।

প্রথমে আমাদের জানতে হবে ডাটাবেস কি। ডাটাবেস আসলে কিছুই না, যা শুধু ডাটা সংরক্ষণ করে। যে কোন প্রফেশনাল ওয়েব সাইট তৈরি করার আগে ডাটাবেস ডিজাইন করা অতি প্রয়োজনীয়। একটা উদাহরণ দেয়া যাক। আমাদের টিচার রুল ডাকার সময় একটা হাজিরা খাতা ব্যবহার করে। এই হাজিরা খাতাটি একটি ডাটাবেসের উদাহরণ। শুধু পার্থক্য এই যে হাজিরা খাতা হল ফিজিক্যাল কিন্তু ডাটাবেস হল লগিকাল। অর্থাৎ ডাটাবেসে ব্যবহার করলে কোন কাগজ কলম ব্যবহার করা লাগে না। আপনি কোন তথ্য জানতে চাইলে তা নিমিষেই জানতে পারবেন। ডাটাবেস ব্যবহারের আরো অনেক অনেক উপকারিতা আছে।

পিএইচপি দিয়ে পার্সোনাল ব্লগ তৈরির টিউটোরিয়ালঃ পর্ব-2

ডাটাবেস ডিজাইনঃ

এখন আমরা আমাদের পারসনাল ব্লগের ডাটাবেস ডিজাইন করব। মূলত ব্লগের বিভিন্ন ফাংশনগুলোকে আমরা ডাটাবেসের মাধ্যমে উপস্থাপন করব এবং প্রত্যেকটি ফাংশনকে আমরা এক একটি টেবিল হিসেবে ধরে নেব। ডাটাবেসকে আপনি হাজিরা খাতার সাথে তুলনা করতে পারেন। হাজিরা খাতায় যেমন প্রত্যেকটি ক্লাসের জন্য টেবিল করা হয় তেমনি আমরা ডাটাবেসে প্রত্যেকটি ফাংশনকে এক একটি টেবিল হিসেবে কল্পনা করব। তাহলে দেখা যাক আমাদেরকে কয়টা টেবিল তৈরি করতে হবে।

  • পোস্টঃ এই অংশে সকল পোস্ট থাকবে
  • ক্যাটাগরিঃ এই অংশে ক্যাটাগরি থাকবে
  • কমেন্টসঃ এই অংশে ক্যাটাগরি থাকবে
  • ইউজারঃ এই অংশে থাকবে রেজিস্টার ইউজার

এখন আমরা গ্রাফিক্যালি একটু বেপারটা দেখি।

পিএইচপি দিয়ে পার্সোনাল ব্লগ তৈরির টিউটোরিয়ালঃ পর্ব-2

এখন আমরা আবার হাজিরা খাতায় ফিরে যাই। হাজিরা খাতায় প্রত্যেকটি স্টুডেন্ট এর রোল, উপস্থিতি, ডেট থাকে। এখানে আমরা প্রত্যেকটি ইউজারকে স্টুডেন্ট এর সাথে তুলনা করব। তাহলে আমরা প্রত্যেকটা ফাংশনের কিছু বৈশিষ্ট পাব। তাহলে এগুলো নিচে লিখা যাক।

ইউজারঃ ইউজার নেম, ইউজার আইডি, ইউজার রোল, ইউজার ফাস্ট নেম, ইউজার লাস্ট নেম,  ইউজার ইমেইল।

পোস্টঃ পোস্ট আইডি, পোস্ট বডি, পোস্ট ডেট।

ক্যাটাগরিঃ ক্যাটাগরি আইডি, ক্যাটাগরি নেম ইত্যাদি।

কমেন্টসঃ কমেন্ট আইডি, কমেন্টার নেম, কমেন্ট ডেট ইত্যাদি।

এই বৈশিষ্ট নিয়ে আমরা যে ডায়াগ্রামটি আঁকব তাকে বলা হয় এনটিটি রিলেশনশিপ ডায়াগ্রাম অথবা E-R ডায়াগ্রাম। আজকে এই পর্যন্ত থাক আগামি পর্বতে আমি E-Rডায়াগ্রাম নিয়ে আলোচনা করব কেননা ব্লগ বা যেকোন প্রফেশনাল পিএইচপি সাইট ডেভেলপ করতে হলে আপনাকে E-R ডায়াগ্রাম সম্পর্কে ভাল ধারনা রাখতে হবে। তার আগে আপনাদেরকে আবারো বলতেছি পিএইচপি দিয়ে শপিং কার্ট টিউটোরিয়ালটি ভাল করে অনুশীলন করুন। তাহলে উপকার পাবেন।

পিএইচপি শপিং কার্ট টিউটোরিয়াল

8 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ