রমজানের অঙ্ক মিলিয়ে নিন, মিস করলে নিজেই ঠকবেন ।

6
378

আসসালামুয়ালাইকুম ।  সবাই কেমন আছেন । রমজান কেমন কাটছে  । আশা করি আল্লাহর রহমতে  ভালই  । রহমত মাগফিরাত এবং নাজাতের মাস মাহে রমজান ।  এ মাসেই মহা গ্রণ্থ  আল কুরআন নাজিল হযেছিল  তাই হাজার মাসের চাইতেও মূল্যবান এ মাস  ।   এ মাসে ১টি নফল নামাজ ১টি ফরজ নামাজ এর সমান, আর ১টি ফরজ ৭০টি ফরজ নামাজ এর সমান ।  এক রাকাত নামাজ ৭০ রাকাত নামাজের সমান,  কেউ যদি ফজর-এ ২ রাকাত, জোহরে ৪ রাকাত, আসরে ৪ রাকাত, মাগরিবে ৩ রাকাত এবং এশার ৪ রাকাত ফরজ নামাজ আদায় করে তবে সে ১ দিনেই ১১৯০ রাকাত শুধু ফরজ নামাজই আদায় করলো আর বাকি নামাজ গুলো যোগ করলে তার পরিমান হবে আরো অনেক বেশি ।  নিজেই অঙ্ক মিলিয়ে নিন সুযোগ হাতছাড়া করবেন নাকি এখনি লুফে নিবেন।  রোজা প্রায় ৫ টি চলে গেছে আমরা কতটুকু আমল যোগ করতে পেরেছি নিজেদের আমলনামায় ।   জীবনে আরেকবার রমজান পাবেন  তার কোনো গেরান্টি নেই,  জীবনের সকল গুনাহ মাপের এটাই সুবর্ণ সুযোগ ।  নামাজ ছাড়াও  কুরআন তিলাওয়াত এর ক্ষেত্রেও একই সুবর্ণ সুযোগ  এক অক্ষরে যেটি ১০ নেকি ছিল অন্য সময়ে, আর রমজান মাসে সেটি ৭০০ নেকি  ।  এ মাসে কাওকে ১ টাকা দান করলে ৭০ টাকাই দান করা হয়ে যাবে, ২ টাকা দান করলে ১৪০ টাকা দান করা হবে,  ২ রাকাত নামাজ পড়লে ১৪০ রাকাত নামাজ পড়া  হয়ে যাবে ।  সকল ভালো কাজেই ১ এ ৭০, সারামাস এ সুযোগ আছে সচেতন হবার সময় এখনি ।  শুধু তাই নয় সেহরী, ইফতার আর তারাবীহ নামাজের অনাবিল প্রশান্তি আপনার মনকে ১০০% পবিত্র করে দিবে  । সুরা তারাবিহ এর চাইতে খতম তারাবিহকে বেশি গুরুত্ব দিন ।  পাশাপাশি  মিথ্যা কথা বলা থেকে বিরত থাকা, যাবতীয় অন্যায় থেকে বিরত থাকা   ছাড়াও  ভালো কাজে সহযোগিতা আর  মন্দ কাজ থেকে   দুরে থাকতে পারলেই  আপনার প্রতিটি রোজা হবে পরিশুদ্ধ  ।  রোজা  আর  দোয়া  কবুলের  ক্ষেত্রে আর  কোনো অন্তরায় থাকবেনা । এ মাসে বেশি বেশি ভালো কাজ করুন যেন এ মাস থেকে শিক্ষা নিয়ে বাকি জীবন ভালোভাবে কাটাতে পারেন  । বিভিন্ন ফোরাম ব্লগ ফেইসবুক এ ভালো কাজের জন্য আহবান করুন, এতে যে সওয়াব পাবেন তাও অন্য সময়ের তুলনায় ৭০ গুন বেশি পাবেন । ইফতার এর আগে দোয়া কবুল হয় তাই এ সুযোগটিও হাতছাড়া করবেননা  । শব ই কদর এর রাতের অভাবনীয় সুযোগতো   থাকছেই যে রাতে দোয়া কবুলের ১০০% গেরান্টি  থাকে । জান্নাত লাভের সুবর্ণ সুযোগ আপনাকে হাতছানি দিয়ে যাচ্ছে  ।  এ মাসে সামর্থ্য থাকলে  কেউ ওমরাহ করেও আসতে পারেন  ।  রমজান ছাড়াও মদিনা শরিফ এ ১ রাকাত নামাজ ৫০ হাজার রাকাত নামাজের সমান আর  মক্কা শরিফ এ  ১ রাকাত নামাজ  ১ লক্ষ্ রাকাত নামাজের সমান । আর রমজান মাসে  সেই সওয়াব এর পরিমান যথাক্রমে ৩৫ লক্ষ  এবং ৭০ লক্ষ রাকাত নামাজের সমান  ।  শুধুমাত্র রমজান মাসের জন্যই এ সুযোগ ।  আমরা হয়ত অনেকেই এসব কথা জানি, যারা জানি তারা যেন মানার চেষ্টা করি, আর যারা জানিনা তারা যেন আরো জানার চেষ্টা করি  ।  ভালো থাকবেন সবাই । পোস্টটি ভালো লাগলে আমার ব্লগ অথবা ফেইসবুক পেজ এ মন্তব্য দিন  । ধন্যবাদ ।

6 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ