সেই মেয়েটি আর নেই

3
549
সেই মেয়েটি আর নেই

আব্দুল মান্নান আসিফ

ভাল কিছু করতে গেলে অনেক কষ্ট পোহাতে হয়, কিন্তু একটা সময়ের পর কাজের ফলটা চরম আনন্দ দেয় :)
<a href="https://www.facebook.com/WebDevAsif"> মুখবইয়ে আমি</a>
২০১১ইং খেকে <a href="http://techtweets.com.bd/author/amasifbd"> টেকটুইটস</a>এ এডমিন, ২০১২ইং থেকে <a href="http://skipper.com.bd"> SkippeR</a> তেWeb Developer হিসাবে কাজ করছি।
সেই মেয়েটি আর নেই

গ্রামের একটি মেয়ে। দশম শ্রেণীর ছাত্রী।বড় ভাই আদর করে তাকে একটি মোবাইল কিনে দিয়েছে। একদিন সেই মোবাইলে অজানা একটি নম্বর থেকে কল আসে, এবং মেয়টি স্বাভাবিক ভাবেই কলার ছেলেটিকে জানিয়ে দেয় যে সে রং নম্বরে ডায়েল করেছে ।কিন্তু সেই অজানা নম্বর থেকে মেয়েটির কাছে কল আসতেই থাকে। মেয়েটিকে ছেলেটি নানাভাবে প্রলোভন দেখাতে থাকে।এক পর্যায়ে মেয়েটি সেই ছেলেটির ফাদে পা দেয় এবং তার প্রেমে পরতে বাধ্য হয়।এভাবে তাদের মধ্যে মোবাইলে প্রেম চলতে থাকে। ১ বছর পর মেয়ের পরিবার তাদের প্রেমের কথা জানতে পারে। তারা স্বাভাবিক ভাবেই তারা এই প্রেম মেনে নেয়। এর মধ্যে মেয়েটি নানান প্রয়োজনে ছেলেটির কাছে টাকা নিতে থাকে এমন কি মেয়েটির পারিবারিক প্রয়োজনেও ছেলেটি তাদের অর্থ সাহায্য করতে থাকে। এভাবে মোট ৭-৮ লক্ষ টাকা ছেলেটি মেয়েটির পরিবারকে দেয়।

এর মধ্যে ছেলেটি বিয়ের প্রস্তাব দেয় এবং মেয়ের পরিবার তাতে সম্মতি জানায়।তারা কেউই ছেলেটির প্রতারনা সম্পর্কে আচ করতে পারে নি। কিছু দিন পর মেয়েটির সাথে যথারীতি ছেলেটির বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন ছেলেটি মেয়েটিকে তার বাবার বাড়ি রেখে যায় এই বলে যে তার পিতা-মাতাকে রাজি করাতে তার কিছু সময় লাগবে। এরই মধ্যে মেয়েটি গর্ভবতী হয়ে গেল।

সেই মেয়েটি আর নেই

পরে ছেলেটি চাপে পরে মেয়েটিকে তার বাড়িতে নিয়ে গেল। বাড়িতে গিয়েই মেয়েটির মাথায় যেন আকাশ ভেঙ্গে পরল। সে বিস্মিত হয়ে দেখল যে তার প্রিয় স্বামি বিবাহিত শুধু তাই নয় তার ২ টি বাচ্চাও আছে। কষ্টে মেয়েটির বুক ফেটে গেলেও সে তার স্বামিকে তেমন কিছু বলতে পারল না। পরবর্তীতে মেয়েটির পিতা মাতা এই ঘটনা শুনে তারা নিজের মেয়েকে ঐ প্রতারকের কাছ থেকে ডিভোর্স দিয়ে নিয়ে আসল। কিন্তু এর মধ্যে মেয়েটির সন্তান মায়ের পেটেই বড় হতে শুরু করেছে।

এই পর্যায়ে তাকে মেরে ফেলা সম্ভব নয়। দেখতে দেখতে মেয়েটি একটি সুন্দর ফুটফুটে কন্যা সন্তানের জননী হল।বাচ্চা মেয়েটি এতই কোনল আর সুন্দর ছিল যে যারাই দেখেছে তারাই অভিভূত হয়েছে। কিন্তু হায় জন্মের ২ দিন পার সকালে শোনা গেল মেয়েটি আর বেঁচে নেই। ভোরে ঘুম থেকে কেউ উঠার আগে ঐ ডাইনি মার পিতা আর ভাই মিলে নিষ্পাপ মেয়েটিকে মাটিতে পুতে ফেলল। মেয়েটির মৃত্যুতে তার মা ও পরিবারের অন্য কারও চোখেই একটুও পানি দেখা গেল না। এতে কারও সন্দেহ রইল না যে ঐ শিশুটির হত্যাকারি কারা।

######ছবিটি আসল নয় প্রতীকী######

 

এই লিখার মধ্যে আমার কোন ক্রেডিট নেই। সকল ক্রেডিট লিংক পেইজের এডমিনের।  ডারেক কপি পেস্ট। আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম ।

3 মন্তব্য

  1. চোখের আড়ালে এমন অনেক ঘটনাই ঘটে যায়। পত্রিকায় দেখতে দেখতে এখন আর দেখেই না কেউ কেউ।
    যদিও এসবের মূলে রয়েছে মোবাইল প্রেম। এটাই বর্তমান যুগের নাটের গুরু। চাই মোবাইলের সঠিক ব্যবহার।

একটি উত্তর ত্যাগ