গড়ে তুলুন আপনার Freelancing Career টিউটোরিয়াল নিয়েঃ পর্ব ২

19
1051
গড়ে তুলুন আপনার Freelancing Career টিউটোরিয়াল নিয়েঃ পর্ব ২

রিকন

আমি একজন ফ্রিল্যান্সার। নিজেকে প্রতিদিন আরো নতুন ভাবে আবিষ্কার করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। বাংলাদেশ ফ্রিল্যান্সিং বাজারে একদিন সবার উপরে থাকবে সেই সপ্ন নিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছি। ব্লগ লিখতে পছন্দ করি এবং শিখাতে ভালবাসি নতুন ফ্রিল্যান্সারদের।
গড়ে তুলুন আপনার Freelancing Career টিউটোরিয়াল নিয়েঃ পর্ব ২

অনলাইনে আয়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম হল ফ্রিল্যান্সিং। তবে আমাদের দেশের অনেকই এখনো ফ্রিল্যান্সিং-এ সফলতা  লাভ করতে পারেন নি। যারা এখনো ফ্রিল্যান্সিং-এ সফল হতে পারেন নি তাদের জন্য আজ থেকে এই ব্লগে প্রাক্টিক্যাল ফ্রিল্যান্সিং নামে একটা সেকশন শুরু করা হল। যেখানে আপনাদের সামনে তুলে ধরা হবে ফ্রিল্যান্সিং সাইটের বিভিন্ন প্রাক্টিক্যাল কাজসমুহ। আপনারা যারা ফ্রিল্যান্সিং করতে চান তাদের জন্য আমার এই চেষ্টা। ফ্রিল্যান্সিং-এ সফল হতে এটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে বলে আমি মনে করি।

গড়ে তুলুন আপনার Freelancing Career টিউটোরিয়াল নিয়েঃ পর্ব ২

প্রাক্টিক্যাল ফ্রিল্যান্সিংয়ের আজকের পোষ্টে আপনাদের সাথে আছি, আমি মোঃ আলাউর রহমান রিকন। কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাক আমার আজকেরই একটি ছোট গ্রাফিক্স ডিজাইন কাজের বিস্তারিত বর্ণনা-

কাজটা আজ (23/12/2011) ওডেস্কে বিকালের দিকে দেখেছিলাম। কাজের বিস্তারিত হল-একজন ভদ্রলোক তার সাইটের জন্য একটা লোগো তৈরী করার জন্য মানুষ খুঁজছেন। এবং তিনি সাথে একটা স্যাম্পল লোগো এটাচ করে দিলেন। তিনি চাইছিলেন যে, তার এটাচ করা লোগোটি যে ফন্টের সেই ফন্টে যেন তার নতুন লোগোটি হয়। শুধু মাত্র নামের পরিবর্তন হবে। তার এটাচ করা লোগোটার চিত্র নিচে তুলে ধরা হল-

আমি প্রথমে কাজটা ভালভাবে বুঝলাম। তারপর দেখলাম যে ফন্টের কথা উনি বলছেন ঐটা আমার কাছে আছে কিনা। দেখলাম ঐ ফন্টটা আমার কাছে নাই। আমি তখন এই ফন্ট খুঁজতে থাকলাম। তারপর একটা গ্রুপের একজন আমাকে ফন্টটার নাম বললেন। আমি এই নামের একটা ফন্ট ডাউনলোড করে সেই ফন্ট দিয়ে আমার নাম লিখে আমি বায়ারের কাছে একটা কভার লেটার দেই। আর কভার লেটারে শুধু কয়েকটা কথা বায়ারকে বললাম। “আমি এই কাজটা খুব সহজে করতে পারি। আমার এটাচ করা ফাইলটাতে একটু দেখুন। আপনি ভাল ও দ্রুত কাজ পেতে চাইলে আমাকে হায়ার করতে পারেন।”

কয়েক ঘন্টা পরে দেখি বায়ার আমাকে ইন্টারভিউতে না নিয়ে সরাসরি হায়ার করে ফেলেছেন। আর আমাকে একটা ম্যাসেজ দিয়েছে। ম্যাসেজটা হল “Hi, thanks for your application.  Please send me the final logo with vriana as the text.  Be sure to make all of the letters lowercase.
Thanks!”

আমি হায়ার হওয়ার পর পরই খুব দ্রুততার সাথে কাজটা শেষ করে বায়ারকে রিপ্লাই দেই। মেইন কাজটা শেষ করতে আমার খুব বেশী হলে ২/৩ মিনিট সময় লেগেছে।

তারপর বায়ার আমার কাজের উপর খুশি হয়ে আমাকে ফাইভস্টার ফিডবেক এবং এর সাথে আমার টাকাগুলো দিয়ে দেয়। কাজের ফাইনাল লোগোটা নিচে দেওয়া হল-

এই জব থেকে শেখার যে বিষয় সমূহঃ

১। কোন জবে এপ্লাই করার আগে জবটা ভালোভাবে বুঝতে হবে।

২। কাজ পুরোপুরি বুঝার পর যদি মনে করেন আপনি কাজটা করতে পাড়বেন তাহলে বিড করুন।

৩। কভার লেটার সহজ এবং অল্প কথায় লিখলে ভাল হবে। আর সাথে কাজের স্যাম্পল দিলে আরো ভাল হবে।

৪। বায়ার যখন কোন রিপ্লাই বা ইন্টারভিউতে ডাকবে, খুব তাড়াতাড়ি তার ডাকের সাড়া দিতে হবে।

৫। যত দ্রুত সম্ভব বায়ারের রিকয়ারমেন্টগুলো পুরো করে আপনার কাজ সাবমিট করবেন।

এটা ছিল আজকের একটা খুব সাধারণ জব। ইনশাআল্লাহ্, পরবর্তীতে আরো প্রাক্টিকাল কাজ নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হব। ততক্ষণ  সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ্য থাকুন। এই কামনায় বিদায় নিচ্ছি। আল্লাহ্ হাফেজ।

মোঃ আলাউর রহমান রিকন

19 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ