একটি অনুপ্রেরনার গল্প “এক চকলেট বিক্রেতা”

5
1819
একটি অনুপ্রেরনার গল্প  “এক চকলেট বিক্রেতা”

সত্যের খলিফা

প্রথমেই বলে নিচ্ছি আমি মহান আল্লাহর এক ক্ষুদ্র সৃষ্টি ছারা আর কিছু নই।

আর এ ছারা যদি বলতে হয় তবে আমি খুব ছোট একটি ছেলে , যে কিনা এখনো স্কুলে পড়ে । স্কুল পালিয়ে বিভিন্ন বাসার গাছ থেকে ফুল ফল চুরি করেআর নিজে নিজে গান গায়,
“আমাকে আমার মতো পড়তে দাও
আমি পড়াকে নিজের মতো ছোটো করে নিয়েছি
যা পরিনি পরিনি তা না পড়াই থাক”
আর! হ্যাঁ! যে কিনা দুপুর হতে হতেই ব্রম্মাপুত্রের পানিতে গোছোলের জন্য বন্ধুদের নিয়ে ঝাপ দেয় । আর!.....................।
একটি অনুপ্রেরনার গল্প  “এক চকলেট বিক্রেতা”

আগে কখোনো কোন বাংলা বা ENGLISH ব্লগ এ পোস্ট করি নাই তাই এটাই আমার প্রথম পোস্ট ।। এই লেখাটা আমার নিজের আশাকরি আপনাদের ভালো লাগবে । আর কোন ভুল হলে দয়াকরে ক্ষমার দৃষ্টি দেখবেন……..

আমি যে লেখাটা পোস্ট করছি তা কনো কাল্পনিক গল্প না এটা আমার নিজের দেখা ঘটনা।

একটি অনুপ্রেরনার গল্প  এক চকলেট বিক্রেতা

আজ ঢাকা থেকে ময়মনসিংহ ট্রেন দিয়ে আসছিলাম হটাৎ দেখি একলোক

চকলেট বিক্রি করছে আমি তা গুরুত্ব না দিয়ে জানালার দিকে তাকিয়ে রইলাম আমার পাশের দারানো লোকটি ঐ চকলেট বিক্রেতার কাছ থেকে চকলেট কিনছে তো চকলেট বিক্রেতা তাকে চকলেট দেওয়ার জন্য তার বেগে হাত ডুকিয়ে চকলেট খুচ্ছে  কিন্তু আমার তখন কি জেন খটকা লাগলো তাই আমি ঐ চকলেট বিক্রেতার চোখের দিকে তাকালাম আর যা দেকলাম তাতেযে কেও আবাক হবে কারন তার দুইটি চোখই নষ্ট ! কিন্তু তবু সে চকলেট বিক্রি করে তার দিন চালাচ্ছে । বরই আবাক লাগলো ভাবতে যে সে অন্ধ কিন্তু সে তার দুই চোক নষ্টের আজুহাত দেখিয়ে ভিক্ষা চাইছে না বরং সে জীবনের এই বাধাকে জয় করতে চায় আমার মনে হয় সে পেরেছে জয় করতে । লোকটিকে আমি ডাক দিয়ে তার নাম ও ঠিকানা জিজ্ঞেসা করলে বল্ল  নাম ঃ সাইদুর রহমান আর থাকে টঙ্গির কোন পারায় জানি । লোক্টি যখন আমার কাছ থেকে দূরে যাচ্ছিলো তখন মনে হচ্ছিলো এরাই কি আমাদের শক্তি ! আমারা যখন আমাদের   শক্তি হারিয়ে ফেলি তখন এদের দেখলেই যেনো মনে কোথা থেকে অন্তরে নতুন এক শক্তির জন্ম নেয় ।

এটাই কি অনুপ্রেরণার শক্তি !!!

 

5 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ