সপ্নে পাওয়া সেই স্টিব জবস এর “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস

7
446
সপ্নে পাওয়া সেই স্টিব জবস এর “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস

জামিল হোসেন সিজান

_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-
m bad for bad people,I am good for honest people.
I love poor people and poor baby.
_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-_-
আমি ভালোর জন্যখুবই ভাল এবং খারাপের জন্য খুবই খারাপ.আমি গরীব শিশু ও গরীব মানুষদের খুব ভালবাসী..সুতরাং সাবধান.....
সপ্নে পাওয়া সেই স্টিব জবস এর “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস

সপ্নে পাওয়া সেই স্টিব জবস এর “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস

 কখন যে ট্রেন স্টেশনে এসে পৈাছল আমি বুঝতেই পারি নাই ।ট্রেনের মধ্যেই ঘুমিয়ে গেছিলাম । ট্রেনের বগিতে কেউ ছিলনা । যেন ঘুমের ভাবটা কিছুতেই কাটতেছিল না । ট্রেনের জানালা দিয়ে উকি মেরে দেখি একটি সাদা গাড়ি । গাড়ির মধ্যে স্টিব জবস ও তার দোভাষি । দোভাষি গাড়ির সামনেই ছিল । তাদের দেখেই আমি অবাক হয়ে গেলাম ।

স্টিব জবস আমার দিকে তাকিয়ে হাসতেছিলেন । আমি আরো অবাক হয়ে গেলাম । স্টিব  এর সাথে দেখা পাব ভাবতেই অবাক লাগতেছে । আমাকে গাড়ির মধ্যে থেকে ইশারায় ডাকলেন । আমি ট্রেন থেকে নেমে তার কাছে গেলাম । তিনি হাস্যেজ্জল মুখে আমাকে তার গাড়িতে উঠার জন্য বললেন । তার দোভাষি থাকা সত্তেও তিনি আমার সাথে বাংলাতে কথা বললেন । আমি পিছনের দিকে তার সাথে তার গাড়িতে উঠে বসলাম । স্টিব জবস এতই সাধারন ছিলেন যে,তিনার সাদা গাড়ি ও সাদা পোষাক দেখেই বুঝলাম । তিনার গাড়ি এক অচেনা জায়গার দিকে চলতে লাগলেন । হঠাৎ সপ্নে একটি মাঠের দিকে চলে গেলাম । মাঠটি অনেক সবুজ ছিল ।

 স্টিব জবস ও আমি মাঠের মধ্যে বসে ছিলাম । তার দিকে তাকিয়ে তার হাস্যেজ্জল মুখটা দেখতে লাগলাম,তিনি ছবির মতই হাস্যেজ্জল ও সুন্দর ছিলেন । হঠাৎ তিনি তার আইফোন 4 এস এর সবশেষ ভার্সন এর টির ব্যাপারে আমাকে বলতে লাগলেন ।তার আইফোন 4 এস এর মধ্যে এমন একটি এ্যপস ছিল যা অন্য কারো আইফোন 4 এস এ ছিল না । তিনি তার এ্যপস টির নাম রেখেছিলেন “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ তিনি তার আইফোন 4 এস সেটটি আমাকে দেখতে দিলেন । দেখতে দেখতে হঠাৎ সেই “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপসটি পাখির সুরে ডাকতে লাগল,এতো সুন্দর মিস্টি সুর আর কোথাও শুনি নাই । আমি স্টপ বললাম আর এ্যপসটি থেমে গেল,আবার কিছুক্ষন পরেই দেখি যে, আবার সেই এপ্যসটি বেজেঁ উঠল । আবার স্টপ বললাম,আবারো বন্ধ হয়ে গেল । তিনি বললেন যে এটি বন্ধ হবে না । কারন তুমি এখন ঘুম থেকে উঠনাই । আমি স্টিব জবস কে বললাম যে স্যার আপনি এতদুরে আমাকে দেখার জন্য এলেন কেন,স্টিব জবস বললেন যে-আমাকে স্যার বলবেন না,আপনার হার্ট এর প্রবলেম এর কথা শুনেই আপনার সাথেই আসলাম,আপনার কি হার্ট এর প্রবলেম ? আমি বললাম হম স্টিব জবস আমার হার্ট এর প্রবলেম ।

হঠাৎ তিনি তার ফুসফুস আর হার্ট বের করে আমাকে দেখালেন যে এই দেখেন আমার সব কল কব্জা .তার সব কিছুই যেন তরতাজা হয়েছিল,আমি খুব ই অবাক হলাম,আমি ত্খন ও জানি না যে তিনি মৃত একজন ।কিছু ক্ষনের মাঝেই তার দোভাষি চলে আসলেন…আমি তাকে আমার এলাকায় নিয়ে ঘুরাতে গেলাম…কিছুক্ষন পরেই ……….

কে যেন আমাকে ডাকতেছে যে একটি রুগি এসেছে । আর তখন ই ঘুমটা ভেংগে গেল । আমি মন মরা হয়ে গেলাম যে তিনি আমার সাথে দেখা করতে সপ্নে এলেন কেন ? এর পর আমি বিছানা ছেড়ে উঠে বাবার ডাক্তার খানার দিকে এগুতে লাগলাম,আর এই সপ্ন এর কথা ভুলে যেন না যাই,সেজন্য সাথে সাথেই একটি নোট প্যাড এ লিখতে লাগলাম । সময় টা ছিল বিকাল 6.30 মিনিট……………বিলিভ ইট অর নট ।

আজ আমি স্বপ্নে পাওয়া সেই স্টিব জবস এর “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস তৈরি তে ব্যস্ত্য । আসলে এটি আমাদের মাঝেই আছে ।

আপনি কি এখন ঘুমিয়ে আছেন ? তাহলে আপনার দরকার “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস । এই “ ভোর জাগানো সুরের পাখি “ এ্যপস টি আপনার মাঝেই আছে । আপনি খুজে বের করূন পেয়ে যাবেন ।

7 মন্তব্য

একটি উত্তর ত্যাগ